আফগানিস্তানে গজনীর পরে হেরাটও দখল করে নিল তালিবান

Afghanistan.jpg

Onlooker desk: বৃহস্পতিবার তালিবানের (Taliban) দখলে গেল আফগানিস্তানের তৃতীয় বৃহত্তম শহর হেরাট (Herat)। এই নিয়ে গত এক সপ্তাহে দেশের অর্ধেকেরও বেশি দখল করে নিল তালিবান।
দেশের উত্তর, দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের অনেকখানি সরকারের হাতছাড়া হয়েছে। রাজধানী শহর কাবুল ও আরও ক’টি শহর বাদে প্রায় সবই গিয়েছে তালিবানের দখলে। কিন্তু সেগুলিও যথেষ্ট ঝুঁকিপূর্ণ জায়গায় রয়েছে।
বেশ ক’সপ্তাহ ধরে দখলীকৃত হয়ে থাকার পরে বৃহস্পতিবার হেরাট থেকে প্রত্যাহার করেছে আফগান সেনা। ডেলা আর্মি ব্যারাকে আশ্রয় নিয়েছে তারা। হেরাট (Herat) হল ইরান সীমান্তের কাছে এতটি সিল্ক রোড শহর।
আফগান সেনার এক সিনিয়র আধিকারিক সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘আরও বেশি ধ্বংস এড়াতে আমাদের ওই শহর ছাড়তে হল।’ যদিও এক তালিবান মুখপাত্রের টুইট — সেনারা নিজেদের অস্ত্র ছেড়ে মুজাহিদিনে যোগ দিয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকালে অভ্যন্তরীণ মন্ত্রক জানায়, গজনী তালিবানের (Taliban) দখলে গিয়েছে। কাবুল থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরত্বের গজনী কান্দাহার পর্যন্ত হাইওয়ের পাশে এবং দক্ষিণে তালিবানের মূল এলাকার সঙ্গে যুক্ত।
হেরাটের (Herat) বাসিন্দা মাসুম জান সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘দুপুর পর্যন্তও পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু তারপরে হঠাৎই সব বদলে যায়। শহরের প্রতি কোণে তালিবান নিজেদের পতাকা উত্তোলন করে।’
এই পরিস্থিতিতে ক্রমশ কোণঠাসা আফগান সরকার একটা সমঝোতার পথ ধরতে চাইছে। হানাহানি, হত্যালীলা বন্ধের জন্য কাতারের আলোচনায় ক্ষমতা ভাগাভাগির প্রস্তাব দেয় তারা।
গত মে মাস থেকে মার্কিন সেনাবাহিনী ধীরে ধীরে সরতে থাকে আফগানিস্তান থেকে। দীর্ঘ দু’দশক পরে এ মাসের শেষে পুরোপুরি প্রত্যাহৃত হবে মার্কিন সেনা। মে থেকেই ধীরে ধীরে ফের অভ্যুত্থান ঘটেছে আফগান সেনার। হেরাট ও গজনী তালিবানের দখলে যাওয়ায় আফগান সেনার উপরে চাপ আরও বাড়ল।
এক সপ্তাহেরও কম সময়ে ১২টি প্রাদেশিক রাজধানী দখলে নিয়েছে তালিবান (Taliban)। এমনকী, তালিবান-বিরোধী মাজার-ই-শরিফও ঘিরে ফেলেছে তারা। দক্ষিণে কান্দাহার ও লস্কর গাহ-এ চলছে যুদ্ধ।
লস্কর গাহ-এর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, একটি গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে বুধবার সন্ধ্যায় সিটি পুলিশের হেড অফিস ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
এবং কান্দাহারে শ’য়ে শ’য়ে বন্দিকে মুক্ত করে ‘নিরাপদ’ আশ্রয়ে নিয়েছে বলে জানিয়েছে তালিবান। মাঝেমধ্যেই বন্দিদের মুক্ত করে তাদের পুরোনো র‍্যাঙ্কে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে তারা।
কান্দাহার এক সময়ে তালিবানের (Taliban) শক্ত ঘাঁটি ছিল। কান্দাহার দখল তালিবানের জন্য মনস্তাত্ত্বিক ও পদক্ষেপগত দিক থেকে অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top