কাবুলে ঢুকে পড়ল তালিবান, পদত্যাগ করবেন প্রেসিডেন্ট ঘানি?

Taliban-Kabul.jpg

Onlooker desk: কাবুলে (Kabul) ঢুকে পড়ল তালিবান (Taliban)। সূত্রের খবর, প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেসের দখল নিয়েছে তারা। চলছে আলোচনা। প্রেসি়ডেন্ট আশরাফ ঘানি এখনও পর্যন্ত এ নিয়ে মুখ খোলেননি। তবে সূত্রের খবর, তিনি পদত্যাগ করবেন।
রবিবারই দূতাবাস থেকে কর্মীদের হেলিকপ্টারে করে সরিয়ে নিয়ে গিয়েছে আমেরিকা। সরকারের একটি সূত্রের খবর, ঘানি পদত্যাগ করলে অভ্যন্তরীণ প্রশাসনের হাতে শাসনভার দেওয়া হবে। আবার একটি সূত্রের দাবি, দখল নেবে তালিবান।

Taliban enters Kabul sources say President Ashraf Ghani to step down
রবিবার জালালাবাদের পতনের পর কাবুলের সীমানায় পৌঁছে যায় জঙ্গি সংগঠন। তবে জোর করে, রক্ত ঝরিয়ে রাজধানীর দখল তারা নেবে না বলে জানায়। দোহায় তালিব-নেতারা সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসেন। আর কাবুলের প্রবেশদ্বারে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করতে থাকে সংগঠনের সদস্যরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া কোনও কোনও ভিডিয়োয় দেখা যায়, কাবুল (Kabul) দখল নিশ্চিত করে আনন্দের কান্নায় ভেঙে পড়ছে তালিবান (Taliban)।
আবার, তালিবান সরকারি ভাবে ক্ষমতায় আসার আগে কাবুলের দেওয়াল থেকে মুছে দেওয়া হচ্ছে বিজ্ঞাপনী প্রচারে ব্যবহৃত মহিলাদের মুখ না-ঢাকা ছবি। ছড়িয়ে পড়ে এমন দৃশ্যও।
আফগান সরকারের প্রতিরোধ এ রকম তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ার ঘটনায় স্তম্ভিত কূটনীতিকরা। গত সপ্তাহেই একটি মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়, অন্তত তিন মাসের মধ্যে কাবুল দখল করতে পারবে না তালিবান (Taliban)। কিন্তু সেই ভবিষ্যদ্বাণী মিলল না।
দেশের ভারপ্রাপ্ত ইন্টেরিয়র মিনিস্টার আব্দুল সাত্তার মির্জাকাওয়াল একটি সংবাদমাধ্যমে টুইট বার্তা দেন। তিনি জানান, অভ্যন্তরীণ প্রশাসনের হাতে আপাতত শাসনভার যাবে। শহরে কোনও ধরনের হানাদারির ঘটনা ঘটবে না। শান্তিপূর্ণ ভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর হবে বলে স্থির হয়েছে।
তালিবানের রাজনৈতিক ব্যুরোর প্রধান মুল্লাহ আব্দুল ঘানি বরাদর সরকারের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে দোহা থেকে কাবুলের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। আফগান প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেসের তরফে একটি টুইটে বলা হয়, কাবুলের আশপাশে একাধিক এলাকা থেকে গুলির আওয়াজ শোনা গিয়েছে। তবে সেনা বাহিনী শহরকে দখলে রেখেছে। বাসিন্দাদের সন্ত্রস্ত হওয়ার কারণ নেই।
কাবুলের বহু রাস্তায় গাড়ির মিছিল লেগে যায়। বাসিন্দারা হয় বাড়ি ফিরতে, না হলে দেশ ছেড়ে পালানোর জন্য বিমানবন্দরে পৌঁছতে উদগ্রীব। এতদিন দেশের নানা প্রান্তের দখল নেওয়ায় তালিবানের (Taliban) হাত থেকে বাঁচতে কাবুলে আশ্রয় নিয়েছেন আফগান নাগরিকরা। পরিস্থিতি এখন এমন যে কাবুলের আশপাশের এলাকায় দৈনন্দিন সামগ্রীর হাহাকার দেখা দিয়েছে।
রবিবার কাবুল (Kabul) সীমানার পৌঁছনোর মতোই শহরে প্রবেশের পরেও শান্তিপূর্ণ পথে ক্ষমতা দখলের অবস্থান বজায় রাখে তালিবান (Taliban)। সংগঠনের মুখপাত্র সুহেল শাহিন একটি সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘আমরা কাবুল শহরের ক্ষমতা শান্তিপূর্ণ ভাবে দখল করার জন্য অপেক্ষা করছি।’
শনিবারই জাতি উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। সেখানে তিনি বলেছিলেন, পরিস্থিতির আর অবনতি হবে না। অথচ পরদিনই কাবুলে ঢুকে পড়ল তালিবান। যাঁদের সহযোগিতায় প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেছিলেন ঘানি, তাঁরা পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন উজবেকিস্তানে। এঁদের আবার দাবি, আফগান সেনা তাঁদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।
তালিবান কাবুলে (Kabul) পৌঁছে যাওয়ায় আন্তর্জাতিক দুনিয়ার নেতারা প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। রাশিয়া জানিয়েছে, রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক ডাকার ব্যাপারে তারা অন্য দেশের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে।
এ দিকে কাবুল (Kabul) থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার শেষ বিমান এ দিন দুপুরে আফগানিস্তান ছেড়েছে। আজ রাতে নয়াদিল্লি পৌঁছনোর কথা বিমানটির। বিমান সংস্থার সপ্তাহে তিন দিনের উড়ান আপাতত অনিশ্চিত। রবিবার সকালে কাবুলগামী একটি চার্টার্ড বিমান বাতিল করা হয়।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top