গাজায় বোমাবর্ষণে গুঁড়িয়ে গেল সংবাদ সংস্থা আল জাজিরার অফিস

WhatsApp-Image-2021-05-17-at-2.16.47-PM.jpeg

Onlooker desk: ইজরায়েল-প্যালেস্তাইনের সংঘর্ষ থামার কোনও ইঙ্গিতই নেই। ‘যতদিন প্রয়োজন’ প্যালেস্তাইনের উপরে হামলা চলবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন ইজরায়েলের কেয়ারটেকার প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানইয়াহু। তার ঘণ্টাকয়েকের মধ্যে গাজায় আকাশপথে হামলা শুরু করে ইজরায়েলি সেনা। গাজার উত্তর থেকে দক্ষিণে অত্যন্ত ভারী বোমাবর্ষণে অন্তত ৪২ জন প্যালেস্তিনীয় মারা গিয়েছেন। গত এক সপ্তাহের লাগাতার হামলায় ১৯২ জনের মৃত্যু হয়েছে গাজায়। তার মধ্যে ৫৮টি শিশু।

রবিবার একটি শরণার্থী শিবিরে হামলা চালায় প্যালেস্তাইন। তাতে ৮ শিশু-সহ ১০ জনের মৃত্যু হয়। সংবাদমাধ্যমের অফিসগুলি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় আকাশপথে হানায়। আল জাজিরার অফিসও মিশে যায় মাটিতে। বহুতলকে নিশানা করে হামলা চালায় ইজরায়েল। ধ্বংসের এই খেলায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত শৈশব। সেই প্রভাব যে কত মারাত্মক, তার এক টুকরো ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। বছর দশেকের নাদিন-আবদেল-তইফের প্রশ্ন, কেন তাদের নিশানা করা হচ্ছে? কী-ই বা ক্ষমতা তার? অথচ ইজরায়েলি বিমান হানায় তার বাড়ি এখন ধ্বংসস্তূপ। পরিজন-প্রতিবেশীর মৃত্যু হয়েছে বোমায়। বাড়িঘরের সেই ধ্বংসস্তূপ দেখিয়ে একরাশ কান্নাভেডা গলায় সে বলছে, ‘আমার কী ক্ষমতা আছে? আমার বয়স মাত্র ১০ বছর…।’ কারও জানান নেই, সে কী করবে! আপাতত উত্তর গাজায় রাষ্ট্রপুঞ্জের স্কুলে আশ্রয় নিয়েছে অনেকে। ইজরায়েলেও অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এবং সেখানেও মৃতদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শিশু।
রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা সংসদ রবিবার হিংসা বন্ধের লক্ষ্যে বৈঠকে বসে। কিন্তু দু’দেশের যৌথ বিবৃতি আদায়ে ব্যর্থ হয় তারা। এর মধ্যে শান্তি প্রক্রিয়ায় আমেরিকা বাধা দিচ্ছে বলে মন্তব্য করে নতুন বিতর্ক খুঁচিয়ে তুলেছে চিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top