বিমানেই প্রসব যন্ত্রণা, র‍্যামস্টেন এয়ার বেসে শিশুকন্যার জন্ম দিলেন আফগান তরুণী

Ramstein-Air-Base.jpg

Onlooker desk: আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনার বিমানে উদ্ধার করা হয় তাঁকে। জার্মানির র‍্যামস্টেন এয়ার বেসে (Ramstein Air Base) পৌঁছনোর পর শিশুকন্যার জন্ম দিলেন সেই আফগান তরুণী। তালিবানের বেয়নেটের মুখ থেকে বেঁচে নতুন প্রাণের সঞ্চার ঘটালেন যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের ওই বাসিন্দা।
রবিবার টুইটারে ইউএস এয়ার মোবিলিটি কম্যান্ড (US Air Mobility Command) জানায়, সি-১৭ এয়ারক্রাফ্টে প্রসব যন্ত্রণা শুরু হয় ওই মহিলার। পশ্চিম এশিয়ার একটি ঘাঁটি থেকে ওই বিমান জার্মানির বিশাল মার্কিন ঘাঁটিতে যাচ্ছিল।
বিমানে বাতাসের চাপ কমে যাওয়ায় মহিলার শরীর খারাপ করতে শুরু করে। ফ্লাইট তখন ২৮ হাজার ফুটের উচ্চতায়। টুইটে লেখা হয় — এয়ারক্রাফটের কম্যান্ডার পরিস্থিতি মোকাবিলার উদ্দেশ্যে উচ্চতা কমান। তাতে মহিলার শারীরিক অবস্থার অনেকখানি উন্নতি হয়। মা ও শিশুকে কার্যত বাঁচানোর সম্ভব হয় এর জেরে।
র‍্যামস্টেন এয়ার বেসে (Ramstein Air Base) বিমানটি অবতরণ করার পরে এয়ার ফোর্সের ৮৬ তম মেডিক্যাল গ্রুপের আধিকারিকরা চলে আসেন। তাঁদের তত্ত্বাবধানে শিশুকন্যার জন্ম দেন মহিলা। মা ও সিশুকে তারপর স্থানীয় একটি হাসপাতালে পাঠানো হয়। দু’জনেই আপাতত সুস্থ আছে।
কাতারে বর্তমানে পৌঁছেছেন বহু আফগান নাগরিক। পরিস্থিতি এমনই যে কাবুল থেকে কাতারের অনেক বিমান বাতিল করতে হচ্ছে। শুক্রবারই প্রবল চাপের কারণে কাবুল থেকে ইভ্যাকুয়েশন ফ্লাইট আট ঘণ্টার জন্য আটকে থাকে। কারণ কাতারে বিমান নামার জায়গা হচ্ছিল না।
কাতার থেকে অনেককে এখন জার্মানিতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জোশ অলসন জানান, র‍্যামস্টেন এয়ার বেসে (Ramstein Air Base) পাঁচ হাজার মানুষকে রাখার ক্ষমতা রয়েছে। কিন্তু পরিকাঠামো কিছুটা বাড়িয়ে আজ, রবিবার সন্ধ্যার মধ্যে সাড়ে সাত হাজার মানুষের থাকার ব্যবস্থা করা যেতে পারবে।
অলসন জানান, শরণার্থীদের ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত র‍্যামস্টেন এয়ার বেসে (Ramstein Air Base) রাখা হবে। কারণ জার্মানির সঙ্গে আমেরিকার চুক্তি অনুযায়ী, ১০ দিনের বেশি কেউ জার্মানিতে থাকতে পারবেন না।
জুলাইয়ের শেষ থেকে এ পর্যন্ত ২২ হাজার জনকে আফগানিস্তান থেকে সরানো হয়েছে। এঁদের মধ্যে ১৭ হাজার জনকে ১৪ অগস্ট থেকে বের করা হয়েছে। শুক্রবার এয়ার ফোর্স জানিয়েছে, তাদের একটি সি-১৭ বিমান আফগানিস্তান থেকে রেকর্ড সংখ্যক মানুষকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে গিয়েছে।
সেই বিমানটি রওনা দেয় গত ১৫ অগস্ট। সে দিনই কাবুল কব্জা করে তালিবান। প্রাথমিক ভাবে ৬৪০ জনকে নিয়ে আকাশে ওড়ার কথা জানা গিয়েছিল। পরে জানা যায়, বিমানটিতে ছিলেন ৮২৩ জন।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top