দেশে কেবল গ্র্যাপলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়াকেই স্বীকৃতি দিল ইউনাইটেড ওয়ার্ল্ড রেসলিং

grappling1.jpg

Onlooker desk: গ্র্যাপলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া (জিএফআই)-কে এই খেলায় দেশের একমাত্র প্রশাসক সংস্থা হিসাবে আরও একবার স্বীকৃতি দিল ইউনাইটেড ওয়ার্ল্ড রেসলিং (ইউডব্লিউডব্লিউ)। গত ২৯ এপ্রিল এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।
২০১৫ থেকে ইউডব্লিউডব্লিউ-এর অ্যাসোসিয়েট সদস্য জিএফআই। সম্প্রতি একটি সংগঠন গ্র্যাপলিংকে তাদের আওতায় আনার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। তার প্রেক্ষিতেই নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা জানাল ইউডব্লিউডব্লিউ। অভিযোগ, গ্র্যাপলিং সংক্রান্ত অন্য দু’টি সংগঠনও গড়া হয়। তবে ইউডব্লিউডব্লিউ-এর সিদ্ধান্তের পর স্বীকৃতি পেল কেবল জিএফআই।
ওই সংগঠনগুলি জিএফআই-এর কয়েকজন সাসপেন্ড হওয়া সদস্য চালাচ্ছিলেন বলে সূত্রের খবর। তাঁরা একগুচ্ছ গ্র্যাপলিং সেমিনার, অনুমোদনের কাজ, অপ্রশিক্ষিত কোচদের সার্টিফিকেট ও লাইসেন্স দিচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। এমনকী ইউডব্লিউডব্লিউ-এর লোগোও বেআইনি ভাবে ব্যবহার করছিলেন রেফারিরা। যাঁদের নাম কোচ ও রেফারি হিসাবে উঠে আসছিল, তাঁদের গ্র্যাপলিং সংক্রান্ত কোনও অভিজ্ঞতার প্রমাণ মেলেনি বলেও অভিযোগ উঠেছে।
ইউডব্লিউডব্লিউ-এর সভাপতি এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এই সব কাজ আমাদের কোনও সদস্যই ভালো ভাবে নেননি।’ এ মাসের ৪ তারিখের চিঠিতে জিএফআই-কেই গ্র্যাপলিংয়ের একমাত্র সংস্থা হিসাবে চিহ্নিত করেছে ওই পর্ষদ।
পশ্চিমবঙ্গে গ্র্যাপলিং ফেডারেশন অনুমোদিত একমাত্র সংস্থা হলো ‘বেঙ্গল গ্র্যাপলিং অ্যাসোসিয়েশন’। এই সংগঠনের সভাপতি পার্থ সরকার জিএফআই-এর ন্যাশনাল ওয়ার্কিং কমিটিরও প্রেসিডেন্ট। এবং সচিব সুপ্রিয়া সামন্ত সম্প্রতি জিএফআই-এর যুগ্ম সচিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top