‘কুৎসিততম ভাষা’ কন্নড়! বিপাকে গুগল

google.jpg

Onlooker desk: কন্নড়কে ভারতের ‘কুৎসিততম’ ভাষা হিসাবে তুলে ধরে বিতর্কে গুগল। প্রবল বিতর্ক তো বেধেছেই, কর্নাটক সরকারও গুগলের বিরুদ্ধে আইনি নোটিস পাঠাবে বলে জানিয়েছে।
ভারতের কুৎসিততম ভাষা, এই মর্মে সার্চ ইঞ্জিনে খোঁজা হলে দেখানো হচ্ছিল কন্নড়। এর জেরে প্রবল বিতর্ক দেখা দেয় বিভিন্ন মহলে। পরিস্থিতি আঁচ করে ক্ষমা চায় গুগল। দাবি করে, তারা ওই জবাব দেখাতে চায়নি। তাদের দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে তা মেলে না।
কিন্তু তাতে বিপদ এড়ানো যায়নি। কর্নাটকের কন্নড়, সংস্কৃতি ও বনমন্ত্রী অরবিন্দ লিম্বাভালি জানিয়েছেন, এমন একটি উত্তর দেখানোর জন্য গুগলকে আইনি নোটিস পাঠানো হবে। পরে টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করে গুগলকে ক্ষমাপ্রার্থনার দাবি জানান তিনি। আড়াই বছরের লম্বা ইতিহাস কন্নড় ভাষার। যুগ যুগ ধরে তা মানুষের অন্যতম গর্বের কারণ হয়ে থেকেছে বলেও মন্ত্রী জানান।
গুগলের এক মুখপাত্র সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, সার্চের রেজাল্ট সবসময় একেবারে ঠিক হয় না। কখনও কখনও আজব সব উত্তর আসে। তিনি বলেন, ‘আমরা জানি, সেটা হওয়াও কাম্য নয়। কিন্তু কখনও হয়ে গেলে আমরা সঙ্গে সঙ্গে তা শুধরে নিই। পাশাপাশি লাগাতার এই পদ্ধতি উন্নতির চেষ্টা চলে। বোঝাই যাচ্ছে, এ রকম একটা উত্তর গুগলের দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রকাশ করে না। কিন্তু আমরা এই ভূল বোঝাবুঝি ও কারও ভাবাবেগে আঘাত লেগে থাকলে আমরা দুঃখিত।’
কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী, বিজেপির বেঙ্গালুরু সেন্ট্রাল এমপি পি সি মোহন-সহ অনেকেই গুগলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top