আমূলের দুই বিজ্ঞাপনে আপ্লুত দেশ, শ্রদ্ধা দৌড়বিদকে, সম্মানিত অভিনেত্রী

Amul-advertisements-Milkha-Singh.jpg

Onlooker desk: তাদের বিজ্ঞাপন মানেই চমক। বুদ্ধিদীপ্ত এবং অনাড়ম্বর। পরপর দু’টি বিজ্ঞাপনের সূত্রে ফের দেশবাসীর মন জয় করল আমূল (Amul)।
একটি সদ্য প্রয়াত বিশ্ববন্দিত দৌড়বীর মিলখা সিংকে (Milkha Singh) নিয়ে। অন্যটির কেন্দ্রীয় চরিত্র বিদ্যা বালন। তাঁর ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘শেরনি’র জন্য।
গত শুক্রবার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন মিলখা। বয়স হয়েছিল ৯১। তার পরে সাদা-কালোয় তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানায় আমূল। দৌড়বীর একাধিক রেস সম্পন্ন করছেন রেস রিবনে। সঙ্গে লেখা — ইতিহাসকো কলম সে নেহি, কদম সে লিখা। অর্থাৎ কলম দিয়ে নয়, ইতিহাস লিখেছিলেন কদমে।
মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ে সেই শ্রদ্ধার্ঘ্য। কেউ লেখেন — মিলখায় (Milkha Singh) মিল্ক রয়েছে। অসাধারণ মিলন। অসাধারণ শ্রদ্ধার্ঘ্য।
আর এক নেটিজেন লেখেন — চমৎকার। এর বেশি কিছু বলার নেই। আর কিছু না-বলাও নেই।
১৯৪৭-এ দেশভাগের পর ভারতে আসেন মিলখা। দেশভাগ পর্বে বাবা-মাকে তো হারিয়েইছিলেন। সেই সঙ্গে মারা যান তাঁর ভাইবোনেরা। জীবনের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে এক সময় ভেবেছিলেন ডাকাত হবেন। কিন্তু মলখন নামে এক ভাইয়ের সহায়তায় সে ভাবনা থেকে সরে আসেন। পরে চার বারের চেষ্টায় ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ১৯৫৮ সালে কমনওয়েলথ গেমসে ভারতকে প্রথম সোনা এনে দেন মিলখা (Milkha Singh) । এশিয়ান গেমসেও একাধিক বার সোনা জিতেছেন। বলা যায়, ভারত যখন নিজের পায়ে হাঁটতে শিখছে, তখন দেশকে ‘স্টারডম’ চিনিয়েছিলেন তিনিই।

Amul wins hearts of millions with two recent advertisements
এ হেন ‘লার্জার দ্যান লাইফ’ ব্যক্তিত্বকে আমূল যে শ্রদ্ধা জানায়, তাতে আবেগপ্রবণ গোটা দেশ।
তার কয়েক দিনের মধ্যে ফের সাড়া ফেলেছে তারা। এ বার উপলক্ষ্য বিদ্যা বালানের (Vidya Balan) ‘শেরনি’। সম্প্রতি অ্যামাজন প্রাইমে মুক্তি পেয়েছে ছবিটি। শুরু থেকেই প্রশংসা কুড়োচ্ছে তা।
গল্পের প্লট মোটামুটি এ রকম — বদলি হয়ে এসেছেন ডিএফও বিদ্যা ভিনসেন্ট (বিদ্যা বালান)। এ দিকে জঙ্গলে খোঁজ মিলছে না এক বাঘিনীর। আশঙ্কা, সে লোকালয়ের দিকে চলে যেতে পারে। ক্রমশ সঙ্কুচিত জঙ্গল বাঘ-ভালুকের স্বাভাবিক বাসস্থানকে নষ্ট করছে। যার জের বাড়ছে পশু বনাম মানুষের লড়াই। সেই বাঘিনীকেই খুঁজে বের করার চ্যালেঞ্জ বিদ্যার (Vidya Balan)। তার মধ্যে পুরুষতন্ত্র থেকে নানা বাধার সম্মুখীন হন ডিএফও। কিন্তু দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই চান বিদ্যা ভিনসেন্ট।
এই ছবি নিয়েই আমূলের সাম্প্রতিকতম বিজ্ঞাপন। ‘শেরনি’র (Sherni) যে ছবিটি ইতিমধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা গিয়েছে, তেমনই সাজে ‘আমূল গার্ল’। দু’পাশে দু’টি বাঘ তার নজর এড়িয়ে পালানোর চেষ্টা করছে। সঙ্গে লেখা শেয়ার না প্লিজ। আরও লেখা — প্রোটেকটেড ফেরোশাসলি।
অলঙ্করণটি বিদ্যা বালানের ভীষণ পছন্দ হয়েছে। ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে সেটা শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। লিখেছেন — থ্যাঙ্ক ইউ। হোয়াট অ্যান অনার। সঙ্গে কতকগুলি হার্টের ইমোজি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top