২৩-এই ১১ সন্তানের মা, ১০৫-এ থামতে চান এই তরুণী। চেনেন এঁকে?

Christina-Ozturk.jpg

Onlooker desk: স্বাদ-পছন্দ এক এক জনের এক এক রকম। তেমনই নেশারও কোনও নির্দিষ্ট দিশা নেই। চা-কফি-মদ-সিগারেট-ড্রাগস থেকে আঠা — কত রকমের নেশায় যে মানুষ আসক্ত! কিন্তু মাতৃত্বের প্রতি আসক্তির কথা কি কেউ কখনও শুনেছে? বিষয়টা নজিরবিহীন, এমনটা হলফ করে বলা না গেলেও নিঃসন্দেহে বিরল।
তবে এ কথা বলাই যেতে পারে যে এমন এক বিরল আসক্তি বছর ২৩-এর ক্রিস্টিনা ওজতুর্কের (Christina Ozturk)। আদতে মস্কোর বাসিন্দা রুশ এই তরুণী ১১টি সন্তানের মা। তিনি ও তাঁর স্বামী, বছর ৫৬-র গালিপ ওজতুর্কের ইচ্ছে সব মিলিয়ে ১০৫টি সন্তানের অভিভাবক হওয়ার! স্বাভাবিক ভাবে এত সন্তানের জন্ম দেওয়া যেহেতু অসম্ভব, তাই তাঁরা সারোগেসির পথ ধরতে চান।
ক্রিস্টিনা (Christina Ozturk) নিজেও জানাচ্ছেন, তিনি মা হওয়ার প্রতি আসক্ত। এবং তিনি ও তাঁর স্বামী তাঁদের বাড়িতে বাচ্চা জন্মানোর এই ‘সিলসিলা’ বজায় রেখে যেতে চান।
ক্রিস্টিনার যখন ১৭ বছর বয়স, তখন সিঙ্গল মাদার হিসাবে বড় মেয়ে ভিকার জন্ম দেন তিনি। তারপরে জর্জিয়ায় বেড়াতে গিয়ে গালিপের সঙ্গে তাঁর পরিচয়। দু’জনের প্রেমি পড়তে দেরি হয়নি। এবং বিয়েও সেরে ফেলেন কিছুদিনের মধ্যে। তাঁদের প্রথম সন্তান মুস্তাফার জন্ম গত বছর মার্চে। তার পরে গত এক বছরে ন’টি শিশুকে সারোগেসির মাধ্যমে গ্রহণ করেন দম্পতি। আপাতত সবচেয়ে ছোটটির নাম অলিভিয়া। তার জন্ম এ বছর ১৬ জানুয়ারি।
কোটিপতি এই দম্পতি বর্তমানে জর্জিয়াতেই থাকেন। সারোগেসির মাধ্যমে আরও বেশি সন্তান নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের।
ক্রিস্টিনা বলেন, ‘শেষ পর্যন্ত কতগুলি সন্তান আমাদের হবে জানি না। তবে এতেই আমরা থামতে চাই না।’ শিশুদের ভীষণ ভালোবাসেন বলে দাবি ওই তরুণীর। জানান, তাঁর ছেলেপুলেরা রোজ রাত আটটা থেকে পরদিন সকাল ৬টা পর্যন্ত ঘুমোয়। তাদের যাঁরা দেখভাল করেন, তাঁরা সারাদিনের রুটিন বিস্তারিত ভাবে লিখে রাখেন।
কেবল নিজেদের বিশাল পরিবার নিয়েই খুশি নেই ক্রিস্টিনারা। ছেলেমেয়ে-সহ নিয়মিত নিজেদের ছবিও তাঁরা আপলোড করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। বহু ফলোয়ারও আছেন তাঁদের।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top