কমিটি ভেঙে শূন্য থেকে শুরু হোক, দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে পত্রবোমা কান্তির

Polish_20210705_011755564.jpg

কলকাতা: বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরই বিদ্রোহী হয়ে উঠেছিলেন দমদম উত্তর কেন্দ্রের পরাজিত বাম প্রার্থী তন্ময় ভট্টাচার্য। দলের চরম সমালোচনা করেছিলেন তিনি। এ বার বিদ্রোহের সুর শোনা গেল প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান বাম নেতা কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের গলায়। এর আগেও নির্বাচনে ভরাডুবি নিয়ে রাজ্য কমিটির বৈঠকে ক্ষোভের কথা জানিয়েছিলেন কান্তি। এ বার ভরাডুবির মূল্যায়ন নিয়ে পার্টির রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রকে চিঠি দিলেন তিনি। চিঠিতে রাজ্য নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে সংগঠনে রদবদলের কথা বলেছেন তিনি। যা সামনে আসতেই বাম রাজনীতিতে প্রবল হইচই শুরু হয়েছে।
সিপিএমের রাজ্য নেতৃত্ব অবশ্য কান্তির ক্ষোভ প্রশমনে আগামী মঙ্গলবার তাঁকে মুজফ্ফর আহমেদ ভবনে ডেকে পাঠানো হয়েছে। সূত্রের খবর, সেখানে তাঁর সঙ্গে কথা বলবেন বিমান বসু। রায়দিঘির প্রাক্তন বিধায়ককে বোঝানোর চেষ্টা হবে। কিন্তু তাতে সমস্যা না মিটলে সিপিএম নেতৃত্বও পাল্টা আক্রমণের পথ নিতে পারেন।
উল্লেখ্য, ২০১১ সালে রাজ্যে পালা বদলের পর থেকেই একের পর এক নির্বাচনে খারাপ ফল হয়েছে বামেদের। তবে এ বারের বিধানসভা নির্বাচনে দল শূন্যতে পৌঁছেছে। রায়দিঘি কেন্দ্র থেকে কান্তি নিজেও পরাজিত হয়েছেন। তার পরেই পার্টির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন তিনি। কংগ্রেস এবং ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের সঙ্গে জোট বেঁধে সংযুক্ত মোর্চা গঠনের প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। একই সঙ্গে সূর্যকান্ত মিশ্র, বিমান বসুদেরও কাঠগড়ায় দাঁড় করান কান্তি। এর পর বিপর্যয়ের মূল্যায়ন নিয়ে চিঠি দিতেই হইচই শুরু হয়েছে। সংবাদ মাধ্যমে কান্তি জানিয়েছেন, ‘একসময় দল তো শুদ্ধিকরণের পথে হেঁটেছিল। তাই এই ফলাফল নিয়ে দলকে পুনর্মূল্যায়ন করতে হবে।’ পাশাপাশি দলের সব কমিটি ভেঙে দিয়ে শূন্য থেকে শুরুর কথা বলেছেন তিনি। তবে দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেও চিঠির কথা স্বীকার করেননি প্রাক্তন এই মন্ত্রী। এ ক্ষেত্রে তাঁর বক্তব্য, ‘চিঠি দিইনি, যা বলার প্রকাশ্যেই বলেছি।’ যদিও পার্টি সূত্রে খবর, তাঁর চিঠি রাজ্য সম্পাদকের কাছে পৌঁছে গিয়েছে।
উল্লেখ্য, দলের বিপর্যয়ের পর তন্ময় ভট্টাচার্য একের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। এর পরই দলের তরফে প্রকাশ্যে মতামত জানানোয় তন্মকে সেনসরড করা হয়েছিল। এখন কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়ের ক্ষেত্রে দল কোন পদক্ষেপ করে সেটাই এখন দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top