কলকাতা থেকে গ্রেপ্তার তিন বাংলাদেশি জঙ্গি

Polish_20210712_011530572.jpg

কলকাতা: কলকাতা থেকে ধরা পড়ল বাংলাদেশের নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাতুল মুজাহিদিন (JMB)-এর তিন সদস্য। ভুয়ো পরিচয় দিয়ে কলকাতায় ঘাঁটি গেড়েছিল এই তিন জঙ্গি। নতুন মডিউল তৈরি করে বড় কোনও নাশকতার ছক কষেছিল কি না, তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। এমনকী ধৃতদের সঙ্গে আইসিসের (ISIS) যোগসূত্র রয়েছে বলেও মনে করা হচ্ছে।
রবিবার কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (stf)-এর অভিযানে বেহালা থেকে ধরা পড়ে জেএমবি-র ওই তিন জঙ্গি। ধৃতদের নাম নাজিউর রহমান ওরফে জোসেফ, রবিউল ইসলাম ও শেখ সাবির ওরফে মিকাইল খান। জোসেফই মূল পান্ডা এবং বাংলাদেশে সে জেলও খেটেছে বলে সূত্রের খবর। তিন জনই বাংলাদেশের গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে জেহাদি বইপত্র থেকে শুরু করে ডায়েরি, মোবাইল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এগুলি খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। তদন্তের প্রয়োজন বাংলাদেশ পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হবে বলে এসটিএফ সূত্রের খবর। আগামীকাল সোমবার এই তিন জনকে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে পেশ করা হবে বলে জানা গিয়েছে।
এসটিএফ সূত্রে খবর, মাস দুয়েক আগে বেহালায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতে শুরু করেছিল জোসেফরা। কেউ যাতে কোনও সন্দেহ না করে তার জন্য ফল বিক্রি করত তারা। সম্প্রতি এসটিএফের কাছে খবর আসে, কলকাতায় ফের জেএমবি-র স্লিপার সেলের আনাগোনা বাড়ছে। এর পরেই নজরদারি বাড়ায় স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স। সেই মতো এদিন অভিযানে এসটিএফের জালে পড়ে এই তিন জঙ্গি। প্রাথমিক ভাবে জানা যাচ্ছে, এই তিন জন মূলত জেএমবি-র ফান্ড কালেকশন ও নিয়োগের দায়িত্বে ছিল। তিন জনের ফেসবুক অ্যাকাউন্টেও জেহাদ নিয়ে নানা পোস্ট রয়েছে। জেএমবি-র অন্যতম শীর্ষ নেতা আল আমিনের সঙ্গে ধৃতদের যোগাযোগ রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে কলকাতা তারা কী ভাবে এল বা বাড়ি ভাড়া নিতে কে তাদের সাহায্য করল তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। পাশাপাশি কলকাতায় কোনও নাশকতার ছক ছিল কি না, তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। আদালতে পেশ করে তাদের হেফাজতে নিলে বিস্তারিত তথ্য বেরিয়ে আসবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top