পিএসি-র চেয়ারম্যান মুকুল, বিধানসভা থেকে ওয়াকআউট বিজেপির

Polish_20210710_010653554.jpg

কলকাতা: বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির (পিএসি) চেয়ারম্যান হলেন মুকুল রায়। দিনকয়েক আগে তৃণমূলে যোগ দিলেও খাতায়-কলমে এখনও বিজেপিতেই রয়েছেন মুকুল।
এ দিকে, শুক্রবারের এই সিদ্ধান্তের জেরে বিজেপি বিধায়করা ওয়াকআউট করেন। তাঁদের বক্তব্য, সাধারণত বিরোধী দলের কোনও বিধায়ককে পিএসি-র চেয়ারম্যান করা হয়। এই পদের জন্য বিজেপি অশোক লাহিড়ির নাম মনোনীত করেছিল। তিনি কেন্দ্রের প্রাক্তন মুখ্য অর্থনৈতিক উপদেষ্টা। এবং বালুরঘাটের বিধায়ক।
বিধানসভায় বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘আমরা পিএসি-তে মুকুল রায়ের নাম মনোনীত করিনি। শাসকদল সরকারি তহবিল থেকে অর্থ খরচের পাশাপাশি হিসাবও নিজেরাই রাখতে চায়। এটা তো একনায়কতন্ত্র। স্পিকার প্রথা ভেঙেছেন।’
অন্যদিকে, স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের সিদ্ধান্তকে প্রত্যাশিত ভাবেই সমর্থন জানান তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। তিনি সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘বিরোধী দলের কোনও নেতাকেই পিএসি-র চেয়ারম্যান করতে হবে, এমন কোনও নিয়ম নেই। এটা প্রথা। চেয়ারম্যান বাছাইয়ের অধিকার কেবল স্পিকারের। তিনি ঠিক কাজই করেছেন।’
কক্ষে স্পিকার জানান, অভিজ্ঞতার জন্যই মুকুলকে ওই পদে বেছে নেওয়া হয়েছে।
গত ২৪ জুন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যেই মুকুলের পিএসি চেয়ারম্যান হওয়ার ইঙ্গিত মিলেছিল। সাংবাদিক বৈঠকে মমতা সে দিন বলেন, ‘পিএসি-র জন্য যে কেউ মনোনয়ন দাখিল করতে পারেন। উনি (মুকুল রায়) একজন বিজেপি সদস্য। ওঁকে সমর্থন জানিয়েছে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। প্রয়োজন হলে আমরাও ওঁকে সমর্থন করব। নির্বাচন হলে আমরাই জিতব। মানুষ দেখুক, কাদের ক্ষমতা বেশি। স্পিকার এই সিদ্ধান্তগুলি নেন।’
শুক্রবার অবশ্য কোনও ভোটাভুটি হয়নি। কারণ পিএসি-র মোট সদস্য সংখ্যা ২০। তার জন্য বিজেপি ৬ জন বিধায়কের নাম প্রস্তাব করেছিল। আর ১৪ জনের সুপারিশ এসেছিল তৃণমূলের তরফে।
গত ১১ জুন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফেরেন মুকুল। পিএসি-র জন্য ২৫ জুন মনোনয়ন জমা দেন তিনি। এ দিকে, তার এক সপ্তাহ আগে দলত্যাগ বিরোধী আইনে স্পিকারের কাছে অভিযোগ জানায় বিজেপি। তাদের বক্তব্য ছিল, বিজেপির টিকিটে কৃষ্ণনগর উত্তর থেকে জিতে বিধায়ক হলেও গেরুয়া শিবির ত্যাগ করেননি।
নিয়ম অনুযায়ী, বিধানসভায় বিভিন্ন কমিটির চেয়ারপার্সন বাছাইয়ের অধিকার স্পিকারের। বিধানসভায় ৪১টি কমিটির মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো পিএসি। ২৬ জুন স্পিকারের কাছে মুকুলের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে একটি চিঠি দেয় বিজেপি। কারণ তাঁর নাম গেরুয়া শিবির থেকে মনোনীত করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top