করোনায় বিধিনিষেধে কিছু ছাড়, ইয়াসে টাকা চাওয়া হয়নি, জানালেন মমতা

LOCKDOWN-KOLKATA11.jpg

কলকাতা: করোনা, ইয়াস-সহ প্রশাসনিক নানা বিষয় নিয়ে আজ, সোমবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যপাধ্যায়। মমতা সেখানে কোভিড নিয়ে বিধিনিষেধে কিছু ছাড়ের কথা ঘোষণা করেন। এখন সকাল ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত বাজার, মুদিখানা ইত্যাদি খোলা থাকছে। শাড়ি, গয়না এবং মিষ্টির দোকানও নির্দিষ্ট সময়ে খোলা। এই পরিস্থিতিতে অন্যান্য খুচরো দোকান খুলতে দেওয়ার অনুমতি চেয়েছিলেন ব্যবসায়ীরা। বেলা ১২টা থেকে ৩টে পর্যন্ত সেই সব দোকান খোলায় সায় দিয়েছে সরকার। পাশাপাশি ১০ শতাংশ কর্মী নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কাজ শুরুর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সব ক্ষেত্রেই দূরত্ববিধি মানা বাধ্যতামূলক। রাজ্যে আগামী ১৬ জুন পর্যন্ত বিধিনিষেধ জারি রয়েছে। বিধিনিষেধ শুরু হয়েছে মে মাসের মাঝামাঝি। তাতে সুফলও মিলছে। মমতা এ দিনও জানান, রাজ্যে করোনার সংক্রমণ বেশ খানিকটা কমেছে।
এ দিনের বৈঠকে দিঘা, সুন্দরবন-সহ ইয়াস কবলিত এলাকাগুলি পুনর্নির্মাণ বিষয়ে আলোচনা করেন। পরে তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে তিনি ২০ হাজার টাকা ক্ষয়ক্ষতির হিসাব দিয়েছিলেন। সে বাবদ কোনও ক্ষতিপূরণ পাওয়া গেল কি? জবাবে মমতা বলেন, ‘আমরা কোনও টাকা চাইনি। ওঁকে ক্ষয়ক্ষতির কথা জানানো হয়েছে। উনি যা ঠিক বলে মনে করবেন, সেটাই করবেন বলে জানানো হয়েছে।’ প্রসঙ্গত, মোদীকে ২০ হাজার কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির খতিয়ান দেন মমতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top