আরও মামলা দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে, পুলিশের জালে ৩ সঙ্গী, অসুস্থ সাংসদ মিমি

IMG-20210626-WA0013.jpg

কলকাতা: দেবাঞ্জন-মামলায় আরও নতুন সব তথ্য এল তদন্তকারীদের হাতে। ভুয়ো টিকাকরণ তো আছেই। সেই সঙ্গে প্রতারণা ও জালিয়াতির অভিযোগও উঠছে তার বিরুদ্ধে। তার সঙ্গে হাত মিলিয়ে কুকর্মের অভিযোগে ধরা হয়েছে আরও তিন জনকে।
এ দিকে আজ, শনিবার সকাল থেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অভিনেত্রী-সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। ভোরে পেট ব্যথা শুরু হয় তাঁর। ডাক্তার মিমিকে বিশ্রাম নিতে বলেছেন।
শনিবার পুলিশ জানিয়েছে দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে আরও তিনটি অভিযোগের কথা জানা গিয়েছে। কসবা থানাতেই দায়ের হয়েছে তিনটি অভিযোগ। ক) ১.২ লক্ষ টাকা দিয়ে তাদের ১৭২ জন কর্মচারীর টিকাকরণের ব্যবস্থা করেছিল একটি বেসরকারি সংস্থা। তারা অভিযোগ জানিয়েছে। খ) একটি স্টেডিয়াম তৈরির আশ্বাস দিয়েছিল দেবাঞ্জন। সেই প্রতিশ্রুতিতে এক কনট্র্যাক্টরের থেকে ৯০ লক্ষ টাকাও নেয়। কিন্তু স্টেডিয়াম হয়নি। গ) টেন্ডার পাইয়ে দেওয়ার নামে একটি ওষুধ সংস্থার থেকে ৪ লক্ষের প্রতারণা।
তদন্তকারীদের অনুমান, অনেক আগে থেকেই নানা অপরাধে হাত পাকিয়েছে সে। ভুয়ো টিকাকরণের সূত্রে নেহাত তা সামনে এসেছে।
এবং তা সামনে আনেন সাংসদ মিমিই। গত বুধবার দেবাঞ্জনের শিবিরে টিকা নেওয়ার পরেও শংসাপত্র মেলেনি। ফোনে শংসাপত্র যাবে বলে জানানো হয়। কিন্তু তা-ও যায়নি। এ নিয়ে শিবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় মিমিদের তরফে। তাতে সাড়া না পেয়ে কসবা থানায় বিষয়টি জানান সাংসদ।
তার পরে গ্রেপ্তার করা হয় দেবাঞ্জনকে। এবং সেই শুরু। জানা যায়, কলকাতা পুরসভার নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন সময়ে নানা কাজ করেছে সে। পুরসভার জয়েন্ট কমিশনার বলেও নিজেকে পরিচয় দিত। তৃণমূলের প্রথম সারির নেতাদের সঙ্গে তার ছবি ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত হত্যা ঘটানোর মামলা রুজুর কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
শুক্রবারই বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গড়েছে লালবাজার। পাশাপাশি সিবিআই তদন্তের আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে। ময়দানে নেমে পড়েছে বিজেপি।
পুলিশ অবশ্য তদন্তে কোনও খামতি রাখতে চায় না। আজ সকালে আরও তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁরা হলেন বছর ৫৪-র সুশান্ত দাস, বছর ৩১-এর রবীন শিকদার এবং বছর ৪৪-এর শান্তনু মান্না। এঁদের মধ্যে দু’জন দেবাঞ্জনের ভুয়ো অ্যাকাউন্ট খুলতে পুরসভার আধিকারিক সেজে সই করেছিলেন। অন্যজন টিকাকরণ শিবিরের সঙ্গে যুক্ত বলে অভিযোগ।
এ দিকে আজ সকালে পেটে যন্ত্রণা, ব্লাড প্রেশার কমে যাওয়া ইত্যাদি কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন মিমি। স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে, ভুয়ো টিকা নেওয়ার জন্যই কি এই অসুস্থতা? প্রসঙ্গত, দেবাঞ্জনদের ওই শিবির থেকে ভ্যাকসিনের বদলে দেওয়া হয় অ্যান্টি-বায়োটিক ওষুধ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top