ধনখড়-প্রশ্নে মমতার পাশে এ কোন নতুন ‘বন্ধু’?

Mamata-Banerjee-Jagdeep-Dhankhar.jpg

Onlooker desk: ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে তিনি চিঠি লিখেছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) ‘নীরবতা’ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তারপরে পাড়ি দিয়েছেন দিল্লিতে। সেখানে ধারাবাহিক ভাবে বৈঠক করছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় (Jagdeep Dhankhar)।
এই পরিস্থিতিতে অপ্রত্যাশিত ‘বন্ধু’ পেলেন মমতা (Mamata Banerjee)। চির প্রতিদ্বন্দ্বী বামেরা মুখ খুললেন ধনখড়ের বিরুদ্ধে। এতদিন তৃণমূল (TMC) যে কথা বলে এসেছে, অনেকটা তা-ই শোনা গেল বিমান বসুর গলায়। ধনখড় বিজেপি (BJP) নেতাদের মতো আচরণ করছেন বলে বিমানের অভিযোগ। তাঁর একপেশে আচরণ নিয়েও মুখ খুলেছেন প্রবীণ এই বাম নেতা।
বিমান বলেন, ‘উনি আপাত ভাবে বিজেপির কেউ নন। কিন্তু ওঁর আচরণ বিজেপিরই মতো। এটা তো কোনও রাজ্যপালের ভূমিকা হতে পারে না। উনি নিজেই নিজেকে বিজেপির লোক বলে তুলে ধরছেন। এটা ঠিক নয়। রাজ্যপালের এমন ভূমিকা ভাবাই যায় না। বিশেষত পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্যে।’
ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar) সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্ক মধুর নয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতার (Mamata Banerjee) প্রায় সব কাজেই খুঁত ধরেন তিনি। যার জেরে তাঁর বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন তৃণমূলের নেতানেত্রীরা। ধনখড় (Jagdeep Dhankhar) যাতে আর রাজ্যে না-ফেরেন, সে খোঁচাও দেওয়া হয়েছে।
সোমবার শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে একদল বিজেপি বিধায়ক তাঁর সঙ্গে দেখা করেন। নির্বাচন পরবর্তী হিংসা নিয়ে কথা হয়। রাজ্যে দলত্যাগ বিরোধী আইন নিয়েও সরব শুভেন্দু। ঘটনাচক্রে তার পরদিনই মমতাকে বিঁধে চিঠি লেখেন ধনখড় (Jagdeep Dhankhar)। এবং উড়ে যান দিল্লির উদ্দেশে। চার দিনের সফর তাঁর। কিন্তু এর কোনও কারণ ব্যাখ্যা করেননি ধনখড় (Jagdeep Dhankhar)।
এ দিকে, মমতাকে লেখা চিঠি টুইটে শেয়ার করেন রাজ্যপাল। যা নিয়ম বহির্ভূত বলে সরব রাজ্য সরকার।
আজ, বৃহস্পতিবার (Jagdeep Dhankhar) দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। নিজেই সে কথা জানান। ধনখড় দেখা করেছেন প্রহ্লাদ যোশী এবং প্রহ্লাদ সিং প্যাটেলের সঙ্গে। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সঙ্গেও কথা বলেন। দেখা করার কথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের (Amit Shah) সঙ্গে। ধনখড় (Jagdeep Dhankhar) নিজেই এ কথা জানিয়েছেন।
রাজ্যপালের প্রতি তোপ দেগেছেন প্রবীণ তৃণমূল নেতা সৌগত রায়। তিনি বলেন, ‘এমন রাজ্যপাল আগে দেখিনি। যাঁর সংবিধান ও তার নিয়মের প্রতি কোনও সম্মান নেই। সংবিধানের প্রতিটি নিয়ম তিনি ভাঙছেন। মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চলার কথা রাজ্যপালের। সংবিধানে তেমনটাই রয়েছে। কিন্তু ধনখড় (Jagdeep Dhankhar) সে সবের পরোয়া করেন না। নিজের খেয়ালখুশি মতো চলেন।’
ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar) কড়া সমালোচক তৃণণূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। সম্প্রতি দু’জনের টুইট-যুদ্ধ শিরোনামে আসে। এ বার ফের টুইট করেছেন মহুয়া। লিখেছেন — আঙ্কেলজি বলছেন ১৫ জুন দিল্লি যাচ্ছেন। পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল সাহেব আমাদের প্রতি একটু সদয় হোন। আর ফিরে আসবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top