বাড়ি ফিরলেও আপাতত গৃহবন্দি ফিরহাদ, বাকিরা হাসপাতালে

4-LEADER.jpg

Onlooker desk: শুক্রবার সন্ধ্যায় চেতলার বাড়িতে ফিরলেন মন্ত্রী তথা কলকাতার পুর প্রশাসকফিরহাদ হাকিম। আপাতত গৃহবন্দি থাকবেন তিনি। নারদ মামলায় ধৃত অন্য তিন নেতামন্ত্রী সুব্রতমুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র শোভন চট্টোপাধ্যায় এখনও এসএসকেএমে ভর্তি।

এই মামলার শুনানির জন্য পাঁচ বিচারপতির বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। সোমবারবেলা ১১টায় পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে মামলাটি ওঠার কথা। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টে প্রধানবিচারপতির বেঞ্চ বা প্রথম ডিভিশন বেঞ্চ নাবসায় শুনানি হয়নি। শুক্রবার বেলা ১১টা নাগাদ শুরু হয়শুনানি। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বেঞ্চেশুরু হয় শুনানি। বিচারপতি বিন্দল ধৃতদের অন্তর্বর্তী জামিনের বিরোধিতা করেন আর বিচারপতিবন্দ্যোপাধ্যায় তাঁদের জামিনের পক্ষে সওয়াল করেন। দুই বিচারপতির এই মতভেদের মধ্যেই উঠে আসেগৃহবন্দি থাকার প্রসঙ্গ। তাতে সিবিআই এবং তৃণমূল কংগ্রেস, দুপক্ষেরই আপত্তি ছিল। তৃণমূল চায়আজই বৃহত্তর বেঞ্চে শুনানি হোক মামলার। যদিও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

সন্ধ্যায় হাইকোর্ট নোটিস দিয়ে জানায়, সোমবার শুনানি হবে বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে।ডিভিশন বেঞ্চের দুই বিচারপতি ছাড়াও থাকবেন বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায়, বিচারপতি হরিশট্যান্ডন এবং বিচারপতি সোমেন সেন। শুনানি হবেন প্রথম থেকে। কারণ তিন বিচারপতি নতুন করেযুক্ত হলেন বেঞ্চে।

দিকে, ফিরহাদকে বাড়ি থেকে কাজকর্ম করার অনুমতি দেওয়া হলেও বেশ কিছু শর্ত চাপিয়েছে কোর্ট।সব কাজই অনলাইন করতে হবে তাঁকে। কোনও নেতা মন্ত্রী বা আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করতে পারবেননা তিনি। পাশাপাশি, চার নেতার বাড়ির সামনেই বসানো থাকবে সিসিটিভি। যাতে তাঁদের তো বটেই, সেই সঙ্গে যাঁরা আসাযাওয়া করছেন এবং বাড়ির অন্য সদস্যদের গতিবিধির উপরেও নজর রাখা যায়।শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top