নারদে সাফল্যের কথা বলেও শুভেন্দু গ্রেপ্তার না হওয়ায় প্রশ্ন ম্যাথুর

MATHEW-SAMUEL.jpg

Onlooker desk: দেরিতে হলেও বিচার হলো। নারদ মামলায় রাজ্যের দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং বিধায়ক মদন মিত্র-সহ চার নেতার গ্রেপ্তারির পর নিজের ‘সাফল্য’ দাবি করে এ কথাই বললেন ম্যাথু স্যামুয়েল। পাশাপাশি, শুভেন্দু অধিকারীকে কেন গ্রেপ্তার করা হয়নি, সে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।
সোমবার ফিরহাদ-সুব্রতদের গ্রেপ্তারির পর ম্যাথু বলেন, ‘এখনই জানতে পারলাম যে তৃণমূলের প্রবীণ মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় ও ববি হাকিম নারদ মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছেন। এটা দীর্ঘ প্রতীক্ষিত বিচারগুলোর একটি। আমি ওই ভিডিয়ো মানুষের সামনে এনেছিলাম ২০১৬-য়। অবশেষে ফল পেলাম। এটাই হলো দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই।’
এ কথা বলার পরই শুভেন্দুর প্রসঙ্গ তোলেন ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্য তথা গোটা দেশের রাজনীতিতে আলোড়ন ফেলে দেওয়া ওই ভিডিয়োর নেপথ্যের নায়ক। তাঁর প্রশ্ন, ‘কিন্তু শুভেন্দু অধিকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়নি নয়? ওঁর ভিডিয়োও রেকর্ড করে সিবিআইকে দিয়েছিলাম। সে ক্ষেত্রে কী করা হলো? বিচার তো সবার জন্য সমান হওয়া উচিত।’
২০১৬-র বিধানসভা ভোটের আগে প্রকাশ করে হয়েছিল নারদের স্টিং ভিডিয়ো ফুটেজ। ম্যাথু স্যামুয়েল নামে এক সাংবাদিক অপারেশনটি চালান। ৫২ ঘণ্টার ফুটেজে দেখা যায়, তৃণমূলের বহু সাংসদ, মন্ত্রী, নেতা এবং এক আইপিএস বেআইনি ভাবে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্য একটি সংস্থার কাছ থেকে টাকা নিচ্ছেন। ভিডিয়ো নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। নাম জড়ায় সাংসদ মুকুল রায় ও শুভেন্দু অধিকারী (দু’জনেই তখন তৃণমূলে, এখন বিজেপির বিধায়ক), সৌগত রায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, সুলতান আহমেদের। রাজ্যের মন্ত্রীদের মধ্যে ফিরহাদ, মদন, সোভন, সুব্রত, ইকবাল আহমেদদের দেখা যায় ভিডিয়োয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top