সস্ত্রীক কোভিড আক্রান্ত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

buddhadeb-mira-bhattacharya.jpg

কলকাতা: কোভিড থাবা বসাল প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শরীরে। সংক্রামিত তাঁর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্যও। মীরার শ্বাসকষ্টের সমস্যা রয়েছে। এক সময়ে ৮৪-তে নেমে যায় তাঁর অক্সিজেনের মাত্রা। একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। বুদ্ধদেব অবশ্য বাড়িতেই আছেন। সূত্রের খবর, হাসপাতালে যেতে রাজি নন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অক্সিজেনের মাত্রা স্থিতিশীল নয়। তাঁকে যাতে হাসপাতালে ভর্তি করা যায়, সেই চেষ্টা করছেন সিপিএম নেতৃত্ব।
আলিমুদ্দিনের অন্দরের খবর, দিনকয়েক ধরে দু’জনের শরীর খারাপ ছিল। চিকিৎসকের পরামর্শে করোনা পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, দু’জনেই পজিটিভ। মঙ্গলবার দুপুর থেকে শ্বাসকষ্ট শুরু হয় মীরার। বুদ্ধদেব আবার সিওপিডি-র রোগী। তবে তিনি হাসপাতালে যেতে না-চাওয়ায় বাড়িতেই তাঁর স্বাস্থ্যে নজরদারি চালানো হচ্ছে।
প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শরীর বহুদিন যাবৎ খারাপ। চিকিৎসা চলছে। বাড়িতে প্রায়ই অক্সিজেন সাপোর্টে থাকেন। বাইপ্যাপ ব্যবহার করা হয়। তাঁর শরীর এতটাই খারাপ যে এ বছর ভোট পর্যন্ত দিতে পারেননি তিনি। মীরা ও মেয়ে সুচেতনা অবশ্য ভোট দেন। মাসকয়েক আগে প্রবল অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন বুদ্ধবাবু। তারপরে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছিলেন। নির্বাচনের আগে সংযুক্ত মোর্চার জোটের ব্রিগেড সমাবেশে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু চিকিৎসকের অনুমতি না-মেলায় যেতে পারেননি। তবে কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে বার্তা পাঠিয়েছিলেন।
চিকিৎসকদের বক্তব্য, সিওপিডি রোগীরা করোনা আক্রান্ত হলে যে কোনও সময়ে অবস্থার দ্রুত অবনতির আশঙ্কা। শীর্ষ বাম নেতৃত্ব তাই কোনও ঝুঁকি না নিয়ে চাইছেন, বু্দ্ধবাবু হাসপাতালেই ভর্তি হোন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top