প্রকাশিত জয়েন্টের ফল, মেধাতালিকায় জয়জয়কার বাংলা বোর্ডের

Joint-Entrance-Examination.jpg

কলকাতা: প্রকাশিত হল এ বারের রাজ্য (West Bengal) জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার (Joint entrance examination) ফল। পরীক্ষার্থীদের ৯৯.৫ শতাংশেরই নাম রয়েছে র‍্যাঙ্কের তালিকায়।
পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেছে খড়দহের পাঞ্চজন্য দে। দ্বিতীয় বাঁকুড়ার সৌম্যজিৎ দত্ত। তৃতীয় শান্তিপুরের ব্রতীন মণ্ডল।
এ বার জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার (Joint entrance examination) জন্য নাম নথিভুক্ত করেছিল ৯২ হাজার ৬৯৫ জন। তার মধ্যে ৬৫ হাজার ১৭০ জন পরীক্ষায় বসে। অর্থাৎ নথিভুক্ত পরীক্ষার্থীর ৭০.৩ শতাংশ। পরীক্ষায় যতজন বসেছে, তাদের মধ্যে ৯৯.৫ শতাংশের নাম রয়েছে তালিকায়। স্থানাধিকারীর তালিকায় নাম থাকা ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ৬৪ হাজার ৮৫০।
জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় (Joint entrance examination) এ বার ছাত্রের সংখ্যা ৪৮ হাজার ৪১। ছাত্রী ১৭ হাজার ১২৯ জন। তালিকাভুক্তদের মধ্যে ৪৭ হাজার ৮১৭ জন ছাত্র এবং ছাত্রী ১৭ হাজার ৩৩ জন।
পরীক্ষার্থীদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) ছাত্রছাত্রী ৫০ হাজার ৮৩। এর মধ্যে ৪৯ হাজার ৮০৯ জন র‍্যাঙ্ক পায়। পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) বাইরে থেকে পরীক্ষায় বসে ১৫ হাজার ৮৭ জন। তার মধ্যে র‍্যাঙ্ক পেয়েছে ১৫ হাজার ৪১ জন।
বোর্ড ভিত্তিক বিভাজনও জানিয়েছে জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ড। এর মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের পড়ুয়া ৩৪ হাজার ৪৪০। সফল ৩৪ হাজার ২১৭। আইএসসি ৮৪০, সফল ৮৩৮। সিবিএসই ১৯ হাজার ৩৩৮, সফল ১৯ হাজার ২৮৮। অন্যান্য বোর্ড ১০ হাজার ৫৫২, সফল ১০ হাজার ৫০৭।
করোনা আবহে রাজ্যে এ পর্যন্ত কেবল এই প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষাটিতেই (Joint entrance examination) সশরীর হাজির হতে হয়েছিল। পরীক্ষা হয়েছিল গত ১৭ জুলাই। সুষ্ঠু ভাবে, করোনা-বিধি মেনেই পরীক্ষা হয়। তার ২০ দিনের মাথায় সফল ভাবে ফল প্রকাশিত হল।
১৩ অগস্ট শুরু হবে কাউন্সেলিং। বোর্ডের ওয়েবসাইট wbjeeb.nic.in-এ কাউন্সেলিং সংক্রান্ত পুস্তিকা আপলোড করা হয়েছে। কাউন্সেলিং হবে তিন ধাপে। ছুটির দিনেও ভর্তি প্রক্রিয়া চালানোর জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিকে অনুরোধ করা হয়েছে।
এ বার প্রথম দশে রয়েছে ১০ জন ছাত্র। র‍্যাঙ্কে দেখা গিয়েছে বাংলা বোর্ডের পড়ুয়াদের জয়জয়কার। প্রথম তিনেই বাংলা বোর্ডের ছাত্ররা। তবে প্রথম দশম জনের মধ্যে কোনও ছাত্রী নেই। নীচে দশ স্থানাধিকারীর নাম দেওয়া হল।
প্রথম — পাঞ্চজন্য দে, রহড়া রামকৃষ্ণ মিশন স্কুল, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।
দ্বিতীয় — সৌম্যজিৎ দত্ত, বাঁকুড়া জেলা স্কুল, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।
তৃতীয় — ব্রতীন মণ্ডল, শান্তিপুর মিউনিসিপ্যাল হাইস্কুল, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।
চতুর্থ — অঙ্কিত মণ্ডল, এম সি কেজরিওয়াল বিদ্যাপীঠ, কাউন্সিল ফর দ্য ইন্ডিয়ান স্কুল সার্টিফিকেট এগজামিনেশনস।
পঞ্চম — গৌরব দাস, নারায়ণা ই-টেকনো স্কুল, সিবিএসই
ষষ্ঠ — আয়ুষ গুপ্ত, দিল্লি পাবলিক স্কুল মেগাসিটি, কাউন্সিল ফর দ্য ইন্ডিয়ান স্কুল সার্টিফিকেট এগজামিনেশনস।
সপ্তম — ঋতম দাশগুপ্ত, আর্মি পাবলিক স্কুল, সিবিএসই।
অষ্টম — সপ্তশ্ব ভট্টাচার্য, বি ডি মেমোরিয়াল ইন্টারন্যাশনাল, সিবিএসই।
নবম — ঋষি কেজরিওয়াল, সেন্ট স্টিফেন্স স্কুল, কাউন্সিল ফর দ্য ইন্ডিয়ান স্কুল সার্টিফিকেট এগজামিনেশনস।
দশম — সৌহার্দ্য দত্ত, বালিগঞ্জ গভর্নমেন্ট হাইস্কুল, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top