ফিরহাদ-সুব্রতদের জামিনে স্থগিতাদেশ কলকাতা হাইকোর্টের

KOLKATA-HIGH-COURT.jpg

কলকাতা: স্বস্তি বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না তৃণমূলের। সোমবার দিনভর আইনি টানাপড়েনে নারদ মামলায় নিম্ন আদালতে জামিন মিলেছিল মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন সিবিআই আধিকারিকরা। রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ জামিনে স্থগিতাদেশ দেয় হাইকোর্ট। আগামী বুধবার মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বলে আদালত সূত্রে খবর। ফলে তার আগে মুক্তি পাচ্ছেন না চার রাজনীতিক। তবে তার আগে এই চার নেতা সুপ্রিম কোর্টে যাবেন কি না, সেটাই এখন দেখার।
এদিকে শুধু জামিনে স্থগিতাদেশ নয়, এই মামলা অন্য রাজ্যে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারেও আবেদন জানানো হয়েছে সিবিআই-এর তরফে। সেক্ষেত্রে সিবিআইয়ের তরফে আজকের সারাদিনের গন্ডগোলের ঘটনা তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে জানা যায়, রাতের দিকে চার জনই কিছুটা অসুস্থ বোধ করেন। পরে তাঁদের শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। তাঁদের নিয়ে যাওয়া হবে প্রেসিডেন্সি জেলে। হাইপ্রোফাইল চার বন্দি যাওয়ার আগে সেখানেও প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়।
অন্যদিকে, দিনভর বিক্ষোভের পর বিকেলে স্বস্তি ফেরে তৃণমূল শিবিরে। যদিও ফিরহাদ-সুব্রতরা ছাড়া না পাওয়ায় তাঁদের অনুগামীরা ভিড় করে দাঁড়িয়ে থাকেন। সিবিআই হাইকোর্টে যাওয়ায় সেখানকার রায়ের জন্য অপেক্ষা করছিলেন তাঁরা। কিন্তু রাতে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশের কথা জানার পর ফের ক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top