মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনেই ছেড়েছিলাম বৈঠক: শো-কজের জবাব আলাপনের

alapan-bandyopadhyay.jpg

কলকাতা: রাজ্যের সদ্য প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জবাব দিলেন কেন্দ্রের শো-কজ চিঠির। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবারের ওই তিঠিতে আলাপন জানিয়েছেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পালন করা মুখ্যসচিব হিসাবে তাঁর কর্বত্য ছিল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েক নির্দেশেই তিনি গত শুক্রবার কলাইকুন্ডায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করতে যান। আবার সেই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশেই সেখান থেকে বেরিয়ে দিঘায় প্রশাসনিক বৈঠকে পৌঁছন। তবে এই জবাবের প্রেক্ষিতে কেন্দ্রের প্রতিক্রিয়া এখনও জানা যায়নি। আপাতত নজর সে দিকেই।
পাশাপাশি কেন্দ্রের কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন বর্তমান মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা হিসাবে আলাপনের কী ভূমিকা, চিঠিতে হরিকৃষ্ণ সে কথা জানিয়েছেন বলে খবর।
ইয়াস পরবর্তী পরিস্থিতি পরিদর্শনে গত শুক্রবার রাজ্যে আসেন মোদী। কলাইকুন্ডায় রিভিউ মিটিং ডাকেন। প্রথমে ঠিক ছিল বৈঠকটি প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে হবে। কিন্তু পরে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী — অনেককেই আমন্ত্রণ জানানো হয় সেখানে। মূলত শুভেন্দুর উপস্থিতি নিয়ে আপত্তি জানান মমতা। যদিও শুক্রবার কলাইকুন্ডায় হাজির হয়ে মোদীর সঙ্গে তিনি দেখা করেন। সঙ্গে ছিলেন আলাপন। ইয়াসের ক্ষয়ক্ষতির খতিয়ান মোদীকে দিয়ে দিঘায় প্রশাসনিক বৈঠকের উদ্দেশে রওনা হন দু’জনেই।
এ নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়। শুক্রবারই আলাপনকে কেন্দ্রীয় ডেপুটেশনে ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু তাতে সাড়া না দিয়ে এক্সটেনশনও গ্রহণ না করে সোমবার অবসর নিয়ে নেন আলাপন। সোমবারই তাঁকে শো-কজ করে কেন্দ্র। বৃহস্পতিবারের মধ্যে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় তাঁকে। এ দিন সেই জবাবই দিলেন প্রাক্তন মুখ্যসচিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top