অভিষেককে আশীর্বাদ করলেন পার্থ-সুব্রত, জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেললেন বক্সি

Polish_20210607_011625615.jpg

কলকাতা: শনিবারই বড় দায়িত্ব পেয়েছেন। যুব তৃণমূলের সভাপতি থেকে একেবারে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন সাংসদ তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার রাতে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানালেন, নতুন দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালনে তিনি দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। মানুষের ভালোবাসা ও ভরসার মর্যাদা দিতে তৃণমূল বদ্ধপরিকর।

সুব্রত মুখোপাধ‍্যায়ের সঙ্গে অভিষেক

এ দিন দলের তিন বর্ষীয়ান নেতা সুব্রত বক্সি, পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন অভিষেক। ফেসবুক পোস্টে সে কথাও জানান। লেখেন — দলের বর্ষীয়ান নেতানেত্রীদের আশীর্বাদ ও পরামর্শ আমাকে এই নতুন যাত্রাপথে অগ্রসর হতে উদ্বুদ্ধ করবে। আমার এই নতুন ভূমিকার সূচনালগ্নে দলের তিন অভিজ্ঞ নেতা তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক সংগ্রামের দীর্ঘদিনের শরিক শ্রী সুব্রত বক্সি, শ্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও শ্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের সাথে সাক্ষাৎ করলাম। তাঁদের সুচিন্তিত পরামর্শ আগামীর লড়াইয়ে পথ দেখাবে।
অভিষেককে আশীর্বাদ করতে গিয়ে এ দিন আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন সুব্রত বক্সি, তৃণমূলের ‘বক্সিদা’। তাঁকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেলেন দলের রাজ্য সভাপতি তথা প্রাক্তন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। বক্সি এ দিন অভিষেককে বলেন, ‘নিজের জীবনে যতটুকু আছে, সব উজাড় করে তোকে দিয়ে দেব।’

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অভিষেক

রবিবার সকালে প্রথমে মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাকতলা বাড়িতে যান ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক। বিকেলে সুব্রত বক্সির বাড়ি হয়ে যান পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতে। সকলেই তাঁকে আশীর্বাদ করেন। কাল, সোমবার বিকেলে তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক বৈঠক করার কথা অভিষেকের। সেখানে নিজের আগামীর পরিকল্পনার কথা জানাতে পারেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top