১০০ শতাংশ পাশ মাধ্যমিকে, সর্বোচ্চ নম্বর ৬৯৭ পেল ৭৯ জন

Polish_20210720_111507363.jpg

প্রতীকী চিত্র

কলকাতা: ১০০ শতাংশ পরীক্ষার্থীই পাশ করল এ বারের মাধ্যমিকে। মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পরীক্ষায় যা নজিরবিহীন। আজ, মঙ্গলবার মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। সেখানেই এ কথা জানান পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়।
এ বার ৭০০-র মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর ৬৯৭। ৭৯ জন পরীক্ষার্থী ৯৬৭ পেয়েছে। এত জন একসঙ্গে সর্বোচ্চ নম্বর পাচ্ছে, এমন নজিরও অতীতে দেখা যায়নি।
এ বার মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে ১০ লক্ষ ৭৯ হাজার ৭৪৯ জন পরীক্ষার্থী। এদের মধ্যে ৪ লক্ষ ৬৫ হাজার ৮৫০ জন ছাত্র। এবং ৬ লক্ষ ১৩ হাজার ৮৯৯ জন ছাত্রী।
গত বছর পাশের হার ছিল ৮৬.৩৪ শতাংশ। সর্বোচ্চ নম্বর ৬৯৪। প্রথম ১০ স্থানে ছিল ৮৪ জন। পরীক্ষা দিয়েছিল ১০ লক্ষ ৩ হাজার ৬৬৬ জন। ছাত্রদের পাশের হার ৮৯.৮৭ শতাংশ এবং ছাত্রীদের ৮৩.৪৮ শতাংশ।
আজ সকাল ৯টায় মাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করেন পর্ষদের সভাপতি। ১০টা থেকে জানা যাচ্ছে নম্বর। পরীক্ষার্থীদের নম্বর শ্রেণিতে প্রাপ্ত নম্বরের উপর ৫০ শতাংশ গুরুত্ব বা ওয়েটেজ। এবং দশমের অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের উপরে ৫০ শতাংশ গুরুত্ব বা ওয়েটেজ। এই দুই নম্বর যোগ করে ছাত্রছাত্রীদের ফল তৈরি করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।
তবে এর পরেও থাকছে পরীক্ষার সুযোগ। বিকল্প এই পদ্ধতিতে প্রকাশিত ফল যে ছাত্রছাত্রীদের পছন্দ হবে না, তারা চাইলে ফের পরীক্ষায় বসতে পারে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরীক্ষা নেওয়া হবে। তখন অবশ্য মঙ্গলবার প্রকাশিত নম্বর আর বিবেচিত হবে না। পরীক্ষায় পাওয়া নম্বরই চূড়ান্ত বলে গণ্য করা হবে।
কোথা থেকে জানা যাচ্ছে নম্বর?
নম্বর জানার জন্য দু’টি ওয়েবসাইটগুলি হল wbbse.org, wb.allresults.nic.in, examresults.net এবং results.gov.in। এসএমএস মারফতও জানা যাবে নম্বর। সে জন্য WB10-এর পরে রোল নম্বর লিখে তিনটি নম্বরে পাঠানো যেতে পারে। নম্বরগুলি হল ৫৪২৪২, ৫৬২৬৩ এবং ৫৮৮৮৮।
কী ভাবে জানা যাচ্ছে নম্বর?
ক) প্রথমে পর্ষদের সরকারি ওয়েবসাইট www.wbbse.org-এ যেতে হবে।
খ) সেখানে এ বারের মাধ্যমিকের রেজাল্ট জানার জন্য যে লিঙ্ক দেওয়া হয়েছে, তার উপরে ক্লিক করতে হবে।
গ) খুলে যাবে একটু নতুন পেজ
ঘ) নাম ও রোল/নম্বর লিখে সাবমিট করতে হবে
ঙ) স্ক্রিনে ফল ভেসে উঠবে
চ) ডাউনলোড করে প্রিন্ট আউট নিয়ে রাখতে হবে
পাশাপাশি, পর্ষদের ৪৯টি ক্যাম্প অফিস থেকে মার্কশিট, শংসাপত্র ইত্যাদি নথিও বিলি হচ্ছে ১০টা থেকে। স্কুলগুলিকে তা সংগ্রহ করতে হবে। আর স্কুল থেকে মার্কশিট ও শংসাপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন কেবল অভিভাবকরা। ছাত্রছাত্রীরা কোনও ভাবেই যেতে পারবে না। করোনার কারণে যেমন পরীক্ষা বাতিল হয়েছে, তেমনই রাখা হয়েছে এমন সব নিয়ম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top