টিকাই তো নেই, বিরক্তিকর কলার টিউনটা বাজাচ্ছেন কেন? প্রশ্ন হাইকোর্টের

WhatsApp-Image-2021-05-14-at-12.25.35-PM.jpeg

Onlooker desk: কাউকে ফোন করলেই একঘেঁয়ে সুরে টিকাকরণ নিয়ে খানিক স্তুতি শোনা যাচ্ছে কলার টিউন হিসাবে। এ দিকে দেশের টিকার প্রবল সঙ্কট। সীমাহীন সংক্রমণের মুখেও টিকার জোগানে ব্যর্থ কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে ‘বিরক্তিকর’ ওই কলার টিউন নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করল দিল্লি হাইকোর্ট। টিকাকরণ ও করোনা-সচেতনতা নিয়ে কেন্দ্রের ভূমিকারও সমালোচনা করেছে আদালত।
বিচারপতি বিপিন সঙ্ঘী ও বিচারপতি রেখা পাল্লির ডিভিশন বেঞ্তের পর্যবেক্ষণ — কেউ কাউকে ফোন করলেই আপনারা ওই বিরক্তিকর কলার টিউনটা বাজিয়ে বলছেন টিকাকরণ চলছে। কতদিন ধরে এটা বাজিয়ে চলেছেন, খেয়াল নেই, কিন্তু বাস্তবটা হলো দেশে টিকাই নেই। আপনারা দেশবাসীকে টিকা দিতে পারছেন না আর কলার টিউনে বলা হচ্ছে, টিকা নিন। টিকাকরণই যখন হচ্ছে না, তখন কে পাবে টিকা? এ সবের মানে কী? একটা কিছু তৈরি করেছেন মানে দশ বছর ধরে সেটাই চালিয়ে যাবেন, তা তো হতে পারে না! বাস্তব পরিস্থিতি অনুযায়ী কাজ করুন। দয়া করে এ রকম একাধিক কলার টিউন বানান। যাতে এক এক বার এক এক রকম বার্তা পেয়ে মানুষের কিছু সুবিধা হয়।
বৃহস্পতিবারই আদালত জানিয়েছিল, এইমস-এর অধিকর্তা রণদীপ গুলেরিয়ার বক্তব্য ন্যাশনাল চ্যানেলে সম্প্রচার করা যেতে পারে। কোভিড সচেতনতায় অমিতাভ বচ্চন বা বলিউডের এ রকম কোনও তারকাকে দিয়ে বার্তা পৌঁছনো যেতে পারে মানুষের কাছে। প্রথিতযশা অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের সাক্ষাৎকার শোনানো যেতে পারে। কোর্টের মতে, এ সবই অতি দ্রুত এবং জরুরি ভিত্তিতে করতে হবে। কারণ হাতে সময় নেই। গত বছর যেমন হাত ধোয়া নিয়ে সচেতনতা প্রচার করা হয়েছিল, এ বার তেমন অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর, অক্সিজেন সিলিন্ডার ইত্যাদি নিয়ে মানুষকে সচেতন করা দরকার বলে মনে করছে কোর্ট।
তথ্য নিয়ে আদালতের এই পর্যবেক্ষণ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের আইনজীবীরা জানিয়েছেন, বিষয়টি তাঁরা সংশ্লিষ্ট যুগ্ম সচিব ও স্বাস্থ্য মন্ত্রকের গোচরে আনবেন এবং আগামী সপ্তাহে এ নিয়ে রিপোর্ট দেবেন।
বিচারপতি সঙ্ঘীর নেতৃত্বাধীন এই বেঞ্চ গত ১৯ এপ্রিল থেকে কোভিড পরিস্থিতির উপরে নজর রাখছে। দিল্লির হাসপাতালে অক্সিজেন সঙ্কট থেকে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর অপ্রতুলতা — নানা বিষয়ে বিভিন্ন সময়ে দিল্লি ও কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনায় মুখ খুলেছে আদালত। অত্যন্ত কড়া ভাষায় দুই সরকারকে ভর্ৎসনাও করতে দেখা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top