রাজ্যে দলের কোন্দল বে-আব্রু, দিল্লিতে মোদী-শাহর সাক্ষাতে যোগী আদিত্যনাথ

YOUGI-ADITYANATH.jpg

Onlooker desk: উত্তর প্রদেশে দলীয় কোন্দলের জল্পনার মধ্যেই দিল্লিতে হাজির রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপির অন্য নেতাদের সঙ্গে দেখা করার কথা তাঁর। কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় আদিত্যনাথ সরকারের ভূমিকার সমালোচনা করে উত্তর প্রদেশে দলের একাংশ। আগামী বছর ওই রাজ্যে নির্বাচন। সেই ঘটনার পর এই প্রথম দিল্লি নেতৃত্বের সঙ্গে মুখোমুখি হচ্ছেন আদিত্যনাথ। আজ, বৃহস্পতিবার দুপুরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক দিয়ে দু’দিনের দিল্লি সফর শুরু করেন তিনি। কাল, শুক্রবার মোদী এবং বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করার কথা তাঁর।
বুধবারই কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন জিতিন প্রসাদ। আগামী নির্বাচনে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন বলে মনে করা হচ্ছে। আদিত্যনাথের আমলে ঠাকুরদের (তাঁর জাত) রমরমা খুব বেড়েছে বলে ব্রাহ্মণদের অভিযোগ। এই পরিস্থিতিতে দলের সাংসদ ও বিধায়কদের অনেকে সরকারের কোভিড ম্যানেজমেন্ট নিয়ে প্রকাশ্যেই সরব।
ক্ষোভ প্রশমনে গত সপ্তাহে প্রবীণ বিজেপি নেতা বি কে সন্তোষের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল উত্তর প্রদেশে যায়। ফিডব্যাক নেওয়া ও রিভিউ বৈঠকের জন্য তারা বিধায়ক, সাংসদ, মন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে। উত্তর প্রদেশে যে দলের অন্দরে তীব্র অসন্তোষ দেখা দিয়েছে, তা আঁচ করে একটি ফিডব্যাক সেশন আয়োজনের কথা বলেন আরএসএস-এর প্রবীণ নেতা দত্তাত্রেয় হোসবোলে। বিজেপি অবশ্য আদিত্যনাথকে সরানোর সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছে। উত্তর প্রদেশের আসন্ন নির্বাচনে তিনিই নেতৃত্ব দেবেন। পাশাপাশি অন্য কিছু বদল হবে। জাত ও ধর্মের নানা সমীকরণ মাথায় রেখে মন্ত্রিসভায় নতুন সদস্য আনতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী।
উত্তর প্রদেশ সরকারে আর একটি উল্লেখযোগ্য সংযোজন হতে পারে, অবসরপ্রাপ্ত আমলা এ কে শর্মার যোগদান। এ কে শর্মা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিশ্বস্ত ও ঘনিষ্ঠ অনুগামীদের একজন। আদিত্যনাথের রাজ্যে পরিস্থিতি সামাল দিতে তাঁকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়ার কথা চলছে। যোগীর দিল্লিতে যাওয়ার পিছনে এই প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনাও অন্যতম কারণ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েও সুবিধা করতে পারেনি গেরুয়া শিবির। উত্তর প্রদেশ তাদের কাছে ‘প্রেস্টিজ ইস্যু’। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় রাজ্যের প্রস্তুতির অভাব একেবারে বেআব্রু হয়ে পড়েছে। এমনকী গঙ্গায় একের পর এক করোনায় মৃতের দেহ ভেসে আসার ছবি ভাইরাল হয়েছে দেশ-বিদেশের মিডিয়ায়। পাশাপাশি অগভীর গর্ত খুঁড়ে দেহ পোঁতা নিয়েও প্রবল সমালোচনা দেখা দেয়। এই পরিস্থিতিতে দলে ভাবমূর্তির যে ক্ষতি হয়েছে, তা মোকাবিলায় ব্যস্ত বিজেপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top