‘মদ মাফিয়ারা ক্ষতি করতে পারে’, পুলিশকে চিঠি লেখার পরদিনই ‘দুর্ঘটনা’য় মৃত সাংবাদিক

Sulabh-Srivastava.jpg

সাংবাদিক সুলভ শ্রীবাস্তব ও তাঁর লেখা সেই চিঠি

Onlooker desk: জেলার মদ মাফিয়াদের নিয়ে খবর করার পরে প্রবীণ পুলিশকর্তাদের তিনি জানিয়েছিলেন, তাঁকে মেরে ফেলা হতে পারে বলে ভয় পাচ্ছেন। এবিপি নিউজ এবং এবিপি গঙ্গার সঙ্গে জড়িত সেই সাংবাদিকের মৃত্যু হলো রবিবার রাতে। সুলভ শ্রীবাস্তব নামে ওই সাংবাদিক উত্তর প্রদেশের প্রতাপগড়ে কাজ করতেন।
পুলিশের দাবি, দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছেন সুলভ। ঘটনাস্থলের একটি ছবিতে দেখা গিয়েছে — মুখে আঘাতের চিহ্ন নিয়ে পড়ে রয়েছেন ওই সাংবাদিক। তাঁর জামাকাপড় অবিন্যস্ত। পরনের শার্ট প্রায় খুলে ফেলা হয়েছে। প্যান্টের বোতাম খোলা ও টেনে নামানো। বাইক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলে জামাকাপড়ের ওই রকম অবস্থা কী করে হলো, তা নিয়ে স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে।
বিবৃতি জারি করে প্রতাপগড়ের সিনিয়র পুলিশ আধিকারিক সুরেন্দ্র দ্বিবেদী জানিয়েছেন — কাজ সেরে রবিবার রাত ১১টা নাগাদ মোটরসাইকেলে চড়ে বাড়ি ফিরছিলেন সুলভ। একটি ইটভাটার কাছে বাইক থেকে পড়ে যান তিনি। আশপাশের কয়েকজন শ্রমিক তাঁকে রাস্তা থেকে তোলেন। তাঁর ফোন থেকে আত্মীয়-বন্ধুদের খবর দেন। তাঁরাই অ্যাম্বুল্যান্স ডাকেন। জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। ওই বিবৃতিতে আরও দাবি করা হয়েছে — প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, বাইকে একাই ছিলেন ওই সাংবাদিক। একটি হ্যান্ড পাম্পের সঙ্গে ধাক্কা লাগায় ছিটকে পড়ে যান সুলভ। তবে সব দিকই খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে ওই পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন।
মৃত্যুর একদিন আগেই উত্তর প্রদেশের পুলিশ আধিকারিকদের কাছে চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন, তাঁকে হত্যা করা হতে পারে বলে ভয় পাচ্ছেন। সেই চিঠি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। বহু সাংবাদিকও তা শেয়ার করেছেন।
চিঠিতে সুলভ লিখেছিলেন — জেলার মদ মাফিয়াদের নিয়ে আমার একটি খবর চ্যানেলের পোর্টালে গত ৯ জুন প্রকাশিত হয়। রিপোর্টটি নিয়ে যথেষ্ট আলোচনাও হয়। তারপরে অফিস থেকে বেরোনোর পরে আমার মনে হয়, কেউ বা কারা যেন আমাকে ফলো করছে। সূত্র মারফত আমি জানতে পেরেছি মদ মাফিয়ারা আমার রিপোর্টে খুশি নয় ও তারা আমার ক্ষতি করতে পারে। আমার পরিবারের লোকেরাও খুব উদ্বেগে দিন কাটাচ্ছে।
এবিপি নিউজে একটি ফো-সাক্ষাৎকারে এলাকায় সিনিয়র পুলিশ অফিসার প্রেম প্রকাশ জানান, চিঠি সম্বন্ধে তিনি অবহিত এবং স্থানীয় অফিসারদের বিষয়টি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন।
সুলভের মৃত্যুর কথা জানাজানি হতেই উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে নিশানা করেছেন কংগ্রেসের প্রিয়াঙ্কা বডরা। টুইটে প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন — আলিগড় থেকে প্রতাপগড়ে খুন করে বেড়াচ্ছে মদ মাফিয়ারাকিন্তু উত্তর প্রদেশ সরকার নির্বিকার। সত্য প্রকাশ করতে সাংবাদিকরা বিপজ্জনক প্রশ্ন তুলছেন। কিন্তু সরকার ঘুমোচ্ছে। উত্তর প্রদেশের যে সরকার জঙ্গল রাজকে প্রশ্রয় দেয়, তাদের কাছে কি সাংবাদিক সুলভ শ্রীবাস্তবের বাড়ির লোকের চোখের জলের কোনও উত্তর আছে?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top