Pegasus: প্রথম শুনানি সুপ্রিম কোর্টে, ‘সত্য হলে অভিযোগ গুরুতর’ পর্যবেক্ষণ সর্বোচ্চ আদালতের

WhatsApp-Image-2021-07-19-at-2.38.16-PM.jpeg

Onlooker desk: পেগ্যাসাস (Pegasus) নিয়ে বৃহস্পতিবার প্রথম শুনানি করল সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court of India)। সর্বোচ্চ আদালতের পর্যবেক্ষণ — ফোনে আড়ি পাতা বিষয়ে সংবাদমাধ্যমে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে, সেগুলি সত্য হলে এই অভিযোগ অত্যন্ত গুরুতর। পেগ্যাসাসে বিশেষ তদন্তের জন্য কেন্দ্রকে নির্দেশ দেওয়ার আবেদন জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে গুচ্ছ আবেদন জমা পড়েছে। এ দিন সেগুলিরই শুনানি ছিল। আগামী মঙ্গলবার মামলাটি ফের শুনানির জন্য উঠবে। সে দিন কেন্দ্রকে হাজির থাকার নির্দেশ দিয়েছে কোর্ট।
সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court of India) প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে চলছে পেগ্যাসাস মামলার শুনানি। এই বেঞ্চের দ্বিতীয় সদস্য বিচারপতি সূর্য কান্ত।
দিনদুয়েক আগে এডিটর’স গিল্ড সুপ্রিম কোর্টে একটি আবেদন দাখিল করে। পেগ্যাসাস (Pegasus) স্পাইওয়্যারের চুক্তি ও টার্গেট লিস্টে কারা আছে, তা জানানোর জন্য কেন্দ্রকে নির্দেশ দেওয়ার আবেদন জানানো হয়। তার আগে সুপ্রিম কোর্টে আরও দু’টি আবেদন দাখিল করা হয়। একটি করেন সিপিএম সাংসদ জন ব্রিটাস। অন্যটি আইনজীবী এম এল শর্মা।
তা ছাড়া সিনিয়র সাংবাদিক এন রাম এবং শশী কুমারও সর্বোচ্চ আদালতের (Supreme Court of India) দ্বারস্থ হন। অবসরপ্রাপ্ত কোনও বিচারপতির নেতৃত্বে বিশেষ তদন্তকারী দল গড়ে পেগ্যাসাসে তদন্তের আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা।
সাংবাদিকদের আইনজীবী এসএনএম আবদি এবং প্রেমশঙ্কর ঝা আজ, বৃহস্পতিবার বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদীদের ফোন ট্যাপিংয়ের বিষয়টা না হয় বোঝা যায়। কিন্তু এ ক্ষেত্রে টার্গেট সাধারণ নাগরিক, যাঁরা সরকারের ভিন্ন মত পোষণ করেন। বিষয়টা তাই সংববিধান ভঙ্গ ও অপরাধের পর্যায়ে পড়ছে।’
আবেদনকারীদের হয়ে সওয়ালে এ দিন নেতৃত্ব দেন আইনজীবী কপিল সিবাল। এই সফ্টওয়্যারের যথেচ্ছ ব্যবহার যে সাধারণ মানুষের জীবন ও দেশের গোপনীয়তার অধিকারকে কী ভাবে লঙ্ঘন করেছে, সে কথা তুলে ধরেন তিনি। প্রশ্ন তোলেন, এই সফ্টওয়্যার কে কিনেছে? কত টাকা দামে? হার্ডওয়্যারটি কোথায় রাখা হয়েছিল ইত্যাদি।
এ সব প্রশ্নের উত্তর সরকার ছাড়া কেউই দিতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেন সিবাল। পরের মঙ্গলবার এ নিয়ে হাজির থাকতে হবে কেন্দ্রকে।
পেগ্যাসাস নিয়ে দেশের মধ্যে প্রথম তদন্ত কমিটি গড়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। পশ্চিমবঙ্গের ভিতরে এই পেগ্যাসাস (Pegasus) স্পাইওয়্যারের জাল কতখানি ছড়ানো, তা খতিয়ে দেখতে গড়া গয়েছে এই কমিটি। দুই অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। তাঁরা হলেন হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জ্যোতির্ময় ভট্টাচার্য ও সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court of India) অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এম বি লোকুর।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top