স্বাস্থ্য, শিক্ষামন্ত্রীদের পদত্যাগ, মোদীর মন্ত্রিসভায় বাংলার চার জন-সহ ৪৩ নতুন মুখ কারা?

new-members-in-central-cabinet.jpg

নতুন মুখদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক — ছবি টুইটার

Onlooker desk: নরেন্দ্র মোদীর পুনর্গঠিত মন্ত্রিসভায় নতুন ৪৩ জন সদস্যের নাম ঘোষণা করা হলো। এঁদের মধ্যে চার জন পশ্চিমবঙ্গ থেকে। পাশাপাশি স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন, শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল-সহ একাধিক মন্ত্রী আজ, বুধবার ইস্তফাও দেন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের দু’জন — বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরী।
তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী অশ্বিনী চৌবে এবং শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়ালের ইস্তফাই সবচেয়ে লক্ষ্যণীয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দুই মন্ত্রীর গদিচ্যুত হওয়ার পিছনে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের ভূমিকাই দায়ী।
এপ্রিল-মে জুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কার্যত ধরাশায়ী হয়েছিল দেশ। অক্সিজেন, বেডের আকাল স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর ঘাটতি থেকে টিকার অভাব — সব নিয়ে মুখ পোড়ে সরকারের। দ্বিতীয় ঢেউ এখন অনেকখানি নিয়ন্ত্রণে। এ বার চিন্তা আসন্ন তৃতীয় ঢেউ।
এ বাদে বাকি যে মন্ত্রীরা ইস্তফা দিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল তো আছেনই। সেই সঙ্গে রয়েছেন শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার। বাবুল, দেবশ্রীর পাশাপশি ইস্তফা দিয়েছেন সদানন্দ গৌড়া, সঞ্জয় ধোত্রে, রতনলাল কাটারিয়া, রাও সাহেব, ধানভে পাতিল এবং প্রতাপ চন্দ্র সারঙ্গি।
দ্বিতীয় বার ক্ষমতায় আসার পরে আজই প্রথম মন্ত্রিসভা পুনর্গঠন করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার সঙ্গে গত কয়েক সপ্তাহে বেশ কয়েকবার বৈঠক করেছেন। মন্ত্রীদের কাজ বিস্তারিত ভাবে খতিয়ে দেখেছেন তাঁরা। বিশেষত কোভিড পরিস্থিতিতে যাঁদের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা ছিল, সেই মন্ত্রীদের উপরে নজর দেওয়া হয়েছে।
কোভিড ছাড়াও নানা ইস্যুতে সরকারের মুখ পুড়েছে সম্প্রতি। যার মধ্যে অন্যতম হলো মূল্যবৃদ্ধি। এ ছাড়া নানা ধর্ম, সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভাজনের রাজনীতি করারও অভিযোগ রয়েছে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে।
পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির শোচনীয় ফলাফলও বিশেষ স্বস্তির কারণ নয়। বিশেষত খোদ মোদী, শাহ যেখানে ‘ডেলি প্যাসেঞ্জারি’ করে এমন ভাব দেখিয়েছিলেন যে বাংলার মসনদে বসা কেবল সময়ের অপেক্ষা। তার মধ্যে সামনেই উত্তর প্রদেশ-সহ একাধিক রাজ্যে নির্বাচন।
সবদিক মাথায় রেখেই নতুন মুখ নির্বাচন করেছে বিজেপি। স্বাস্থ্য, শ্রম, শিক্ষায় মন্ত্রিত্ব বদলাচ্ছে। তবে অর্থ, বিদেশ, প্রতিরক্ষা ও স্বরাষ্ট্রে কোনও পরিবর্তন আসছে না। তরুণ প্রজন্মের পাশাপাশি মহিলা ও পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব বাড়ানোর উপরে জোর দিয়েছেন মোদী। রাষ্ট্রপতি ভবনে আজ সন্ধ্যা ৬টায় শপথ নেবেন তাঁরা।
এই নতুন ৪৩ জন মন্ত্রী হলেন —
১। নারায়ণ টাটু রাণে
২। সর্বানন্দ সোনোয়াল
৩। ডঃ বীরেন্দ্র কুমার
৪। জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া
৫। রামচন্দ্র প্রসাদ সিং
৬। অশ্বিনী বৈষ্ণব
৭। পশুপতি কুমার পরশ
৮। কিরেণ রিজিজু
৯। রাজকুমার সিং
১০। হরদীপ সিং পুরী
১১। মনসুখ মাণ্ডব্য
১২। ভূপেন্দ্র যাদব
১৩। পুরুষোত্তম রূপালা
১৪। জি কিষাণ রেড্ডি
১৫। অনুরাগ সিং ঠাকুর
১৬। পঙ্কজ চৌধুরি
১৭। অনুপ্রিয়া সিং প্যাটেল
১৮। ডঃ সত্যপাল সিং বাঘেল
১৯। রাজীব চন্দ্রশেখর
২০। শোভা করন্দলাজে
২১। ভানুপ্রতাপ সিং বর্মা
২২। দর্শনা বিক্রম জারদোস
২৩। মীনাক্ষী লেখি
২৪। অন্নপূর্ণা দেবী
২৫। এ নারায়ণস্বামী
২৬। কৌশল কিশোর
২৭। অজয় ভট্ট
২৮। বি এল বর্মা
২৯। অজয় কুমার
৩০। চৌহান দেবুসিং
৩১। ভগবন্ত খুবা
৩২। কপিল মোরেশ্বর পাতিল
৩৩। প্রতিমা ভৌমিক
৩৪। ডঃ সুভাষ সরকার
৩৫। ডঃ ভগবত কিষাণরাও কারাড়
৩৬। ডঃ রাজকুমার রঞ্জন সিং
৩৭। ডঃ ভারতী প্রবীণ পাওয়ার
৩৮। বিশ্বেশ্বর টুডু
৩৯। শান্তনু ঠাকুর
৪০। ডঃ মুঞ্জাপারা মহেন্দ্রভাই
৪১। জন বার্লা
৪২। ডঃ এল মুরুগান
৪৩। নিশীথ প্রামাণিক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top