হু হু সংক্রমণে রোজই রেকর্ড, মোদীবিরোধী পোস্ট সরিয়ে বিতর্কে ফেসবুক

CORONA-INDIA.jpg

Onlooker desk: করোনায় গোটা বিশ্বের নজর এখন ভারতে। রোজই নিজের আগের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ার পালা চলছে। সেই ধারা অটুট রেখে বৃহস্পতিবার গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হলেন দেশের ৩ লক্ষ ৭৯ হাজার বাসিন্দা। মারা গিয়েছেন ৩,৬৪৫ জন।
এই পরিস্থিতিতে নাগরিকদের ভারতে আসায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকা।
আশার কথা একটাই, শনিবার দেশে ১৮-র বেশি বয়সি সকলের টিকাকরণ শুরু হচ্ছে। সে জন্য কো-উইন এ ইতিমধ্যেই ১ কোটি ৩৩ লক্ষ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। এতে আবার অন্য বিপদও আছে। বেশিরভাগ মানুষই যত দ্রুত সম্ভব টিকা নিতে চাইবেন। তাই গণটিকাকরণ শুরু হলে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় চাপ আরও বাড়বে।
এদিকে অক্সিজেন সংকটও বেড়ে চলেছে। ২২ টি রাজ্যে অক্সিজেনের মাত্রাছাড়া চাহিদায় মোট চাহিদা বেড়েছে ৬৭%। ব্রিটেন, আমেরিকা থেকে সহযোগিতা মিললেও তা পর্যাপ্ত হচ্ছে না।
দিল্লিতে আবার মৃত্যুর সংখ্যা কম করে দেখানোর অভিযোগ উঠেছে। যত মানুষকে রোজ কোভিডে মৃত বলে ঘোষণা করা হচ্ছে, তার প্রায় সম সংখ্যক বা বেশি সংখ্যায় মানুষ আদতে মারা যাচ্ছেন বলে মনে করা হচ্ছে। দিল্লির পার্ক, পার্কিং এরিয়া, সর্বত্র চলছে শেষকৃত্য। সারি দিয়ে জ্বলা চিতার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে।
আমেরিকা থেকে ১০০ মিলিয়ন ডলারের সহযোগিতা আসছে ভারতে। বুধবার এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, তারা ১০০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার, ১৫ মিলিয়ন এন৯৫ মাস্ক এবং ১ মিলিয়ন টেস্ট কিট পাঠাচ্ছে। অক্সিজেন কন্সেন্ট্রেটর এসেছে ব্রিটেন থেকে। সহযোগিতা পাঠাচ্ছে রাশিয়াও।
কিন্তু এই ভয়াবহ মহামারীতেও বিরোধী কণ্ঠ রোধের চেষ্টা অব্যাহত। #ResignModi পোস্ট ব্লক করে বিতর্কে জড়িয়েছে ফেসবুক। প্রবল সমালোচনার মুখে পোস্টগুলি ফেরানো হলেও বিতর্ক থামেনি। বিরোধী কণ্ঠ রোধে সরকারই এই কাজ করিয়েছে বলে অভিযোগ নানা মহলের। কোভিড পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেড়িয়ে যাওয়ার পিছনে মোদীর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে বলে মবে করেন বহু মানুষ। দেশ-বিদেশে সমালোচিত মোদীর পদত্যাগের দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ঝড় উথলে বিষয়টি যে সরকারের পক্ষে স্বস্তির হবে না, সেটা আলাদা করে বলার দরকার নেই।
ফেসবুক অবশ্য পরে সাফাই দেওয়ার চেষ্টা করে। তাদের দাবি, পোস্টগুলি ভুলবশত ডিলিট হয়েছে। সরকারের এতে কোনো ভূমিকা নেই।

করোনায় গোটা বিশ্বের নজর এখন ভারতে। রোজই নিজের আগের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ার পালা চলছে। সেই ধারা অটুট রেখে বৃহস্পতিবার গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হলেন দেশের ৩ লক্ষ ৭৯ হাজার বাসিন্দা। মারা গিয়েছেন ৩,৬৪৫ জন।
এই পরিস্থিতিতে নাগরিকদের ভারতে আসায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকা।
আশার কথা একটাই, শনিবার দেশে ১৮-র বেশি বয়সি সকলের টিকাকরণ শুরু হচ্ছে। সে জন্য কো-উইন এ ইতিমধ্যেই ১ কোটি ৩৩ লক্ষ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। এতে আবার অন্য বিপদও আছে। বেশিরভাগ মানুষই যত দ্রুত সম্ভব টিকা নিতে চাইবেন। তাই গণটিকাকরণ শুরু হলে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় চাপ আরও বাড়বে।
এদিকে অক্সিজেন সংকটও বেড়ে চলেছে। ২২ টি রাজ্যে অক্সিজেনের মাত্রাছাড়া চাহিদায় মোট চাহিদা বেড়েছে ৬৭%। ব্রিটেন, আমেরিকা থেকে সহযোগিতা মিললেও তা পর্যাপ্ত হচ্ছে না।
দিল্লিতে আবার মৃত্যুর সংখ্যা কম করে দেখানোর অভিযোগ উঠেছে। যত মানুষকে রোজ কোভিডে মৃত বলে ঘোষণা করা হচ্ছে, তার প্রায় সম সংখ্যক বা বেশি সংখ্যায় মানুষ আদতে মারা যাচ্ছেন বলে মনে করা হচ্ছে। দিল্লির পার্ক, পার্কিং এরিয়া, সর্বত্র চলছে শেষকৃত্য। সারি দিয়ে জ্বলা চিতার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে।
আমেরিকা থেকে ১০০ মিলিয়ন ডলারের সহযোগিতা আসছে ভারতে। বুধবার এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, তারা ১০০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার, ১৫ মিলিয়ন এন৯৫ মাস্ক এবং ১ মিলিয়ন টেস্ট কিট পাঠাচ্ছে। অক্সিজেন কন্সেন্ট্রেটর এসেছে ব্রিটেন থেকে। সহযোগিতা পাঠাচ্ছে রাশিয়াও।
কিন্তু এই ভয়াবহ মহামারীতেও বিরোধী কণ্ঠ রোধের চেষ্টা অব্যাহত। #ResignModi পোস্ট ব্লক করে বিতর্কে জড়িয়েছে ফেসবুক। প্রবল সমালোচনার মুখে পোস্টগুলি ফেরানো হলেও বিতর্ক থামেনি। বিরোধী কণ্ঠ রোধে সরকারই এই কাজ করিয়েছে বলে অভিযোগ নানা মহলের। কোভিড পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেড়িয়ে যাওয়ার পিছনে মোদীর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে বলে মবে করেন বহু মানুষ। দেশ-বিদেশে সমালোচিত মোদীর পদত্যাগের দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ঝড় উথলে বিষয়টি যে সরকারের পক্ষে স্বস্তির হবে না, সেটা আলাদা করে বলার দরকার নেই।
ফেসবুক অবশ্য পরে সাফাই দেওয়ার চেষ্টা করে। তাদের দাবি, পোস্টগুলি ভুলবশত ডিলিট হয়েছে। সরকারের এতে কোনো ভূমিকা নেই।

করোনায় গোটা বিশ্বের নজর এখন ভারতে। রোজই নিজের আগের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ার পালা চলছে। সেই ধারা অটুট রেখে বৃহস্পতিবার গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হলেন দেশের ৩ লক্ষ ৭৯ হাজার বাসিন্দা। মারা গিয়েছেন ৩,৬৪৫ জন।
এই পরিস্থিতিতে নাগরিকদের ভারতে আসায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকা।
আশার কথা একটাই, শনিবার দেশে ১৮-র বেশি বয়সি সকলের টিকাকরণ শুরু হচ্ছে। সে জন্য কো-উইন এ ইতিমধ্যেই ১ কোটি ৩৩ লক্ষ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। এতে আবার অন্য বিপদও আছে। বেশিরভাগ মানুষই যত দ্রুত সম্ভব টিকা নিতে চাইবেন। তাই গণটিকাকরণ শুরু হলে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় চাপ আরও বাড়বে।
এদিকে অক্সিজেন সংকটও বেড়ে চলেছে। ২২ টি রাজ্যে অক্সিজেনের মাত্রাছাড়া চাহিদায় মোট চাহিদা বেড়েছে ৬৭%। ব্রিটেন, আমেরিকা থেকে সহযোগিতা মিললেও তা পর্যাপ্ত হচ্ছে না।
দিল্লিতে আবার মৃত্যুর সংখ্যা কম করে দেখানোর অভিযোগ উঠেছে। যত মানুষকে রোজ কোভিডে মৃত বলে ঘোষণা করা হচ্ছে, তার প্রায় সম সংখ্যক বা বেশি সংখ্যায় মানুষ আদতে মারা যাচ্ছেন বলে মনে করা হচ্ছে। দিল্লির পার্ক, পার্কিং এরিয়া, সর্বত্র চলছে শেষকৃত্য। সারি দিয়ে জ্বলা চিতার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে।
আমেরিকা থেকে ১০০ মিলিয়ন ডলারের সহযোগিতা আসছে ভারতে। বুধবার এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, তারা ১০০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার, ১৫ মিলিয়ন এন৯৫ মাস্ক এবং ১ মিলিয়ন টেস্ট কিট পাঠাচ্ছে। অক্সিজেন কন্সেন্ট্রেটর এসেছে ব্রিটেন থেকে। সহযোগিতা পাঠাচ্ছে রাশিয়াও।
কিন্তু এই ভয়াবহ মহামারীতেও বিরোধী কণ্ঠ রোধের চেষ্টা অব্যাহত। #ResignModi পোস্ট ব্লক করে বিতর্কে জড়িয়েছে ফেসবুক। প্রবল সমালোচনার মুখে পোস্টগুলি ফেরানো হলেও বিতর্ক থামেনি। বিরোধী কণ্ঠ রোধে সরকারই এই কাজ করিয়েছে বলে অভিযোগ নানা মহলের। কোভিড পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেড়িয়ে যাওয়ার পিছনে মোদীর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে বলে মবে করেন বহু মানুষ। দেশ-বিদেশে সমালোচিত মোদীর পদত্যাগের দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ঝড় উথলে বিষয়টি যে সরকারের পক্ষে স্বস্তির হবে না, সেটা আলাদা করে বলার দরকার নেই।
ফেসবুক অবশ্য পরে সাফাই দেওয়ার চেষ্টা করে। তাদের দাবি, পোস্টগুলি ভুলবশত ডিলিট হয়েছে। সরকারের এতে কোনো ভূমিকা নেই।

করোনায় গোটা বিশ্বের নজর এখন ভারতে। রোজই নিজের আগের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ার পালা চলছে। সেই ধারা অটুট রেখে বৃহস্পতিবার গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হলেন দেশের ৩ লক্ষ ৭৯ হাজার বাসিন্দা। মারা গিয়েছেন ৩,৬৪৫ জন।
এই পরিস্থিতিতে নাগরিকদের ভারতে আসায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকা।
আশার কথা একটাই, শনিবার দেশে ১৮-র বেশি বয়সি সকলের টিকাকরণ শুরু হচ্ছে। সে জন্য কো-উইন এ ইতিমধ্যেই ১ কোটি ৩৩ লক্ষ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। এতে আবার অন্য বিপদও আছে। বেশিরভাগ মানুষই যত দ্রুত সম্ভব টিকা নিতে চাইবেন। তাই গণটিকাকরণ শুরু হলে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় চাপ আরও বাড়বে।
এদিকে অক্সিজেন সংকটও বেড়ে চলেছে। ২২ টি রাজ্যে অক্সিজেনের মাত্রাছাড়া চাহিদায় মোট চাহিদা বেড়েছে ৬৭%। ব্রিটেন, আমেরিকা থেকে সহযোগিতা মিললেও তা পর্যাপ্ত হচ্ছে না।
দিল্লিতে আবার মৃত্যুর সংখ্যা কম করে দেখানোর অভিযোগ উঠেছে। যত মানুষকে রোজ কোভিডে মৃত বলে ঘোষণা করা হচ্ছে, তার প্রায় সম সংখ্যক বা বেশি সংখ্যায় মানুষ আদতে মারা যাচ্ছেন বলে মনে করা হচ্ছে। দিল্লির পার্ক, পার্কিং এরিয়া, সর্বত্র চলছে শেষকৃত্য। সারি দিয়ে জ্বলা চিতার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে।
আমেরিকা থেকে ১০০ মিলিয়ন ডলারের সহযোগিতা আসছে ভারতে। বুধবার এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, তারা ১০০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার, ১৫ মিলিয়ন এন৯৫ মাস্ক এবং ১ মিলিয়ন টেস্ট কিট পাঠাচ্ছে। অক্সিজেন কন্সেন্ট্রেটর এসেছে ব্রিটেন থেকে। সহযোগিতা পাঠাচ্ছে রাশিয়াও।
কিন্তু এই ভয়াবহ মহামারীতেও বিরোধী কণ্ঠ রোধের চেষ্টা অব্যাহত। #ResignModi পোস্ট ব্লক করে বিতর্কে জড়িয়েছে ফেসবুক। প্রবল সমালোচনার মুখে পোস্টগুলি ফেরানো হলেও বিতর্ক থামেনি। বিরোধী কণ্ঠ রোধে সরকারই এই কাজ করিয়েছে বলে অভিযোগ নানা মহলের। কোভিড পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেড়িয়ে যাওয়ার পিছনে মোদীর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে বলে মবে করেন বহু মানুষ। দেশ-বিদেশে সমালোচিত মোদীর পদত্যাগের দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ঝড় উথলে বিষয়টি যে সরকারের পক্ষে স্বস্তির হবে না, সেটা আলাদা করে বলার দরকার নেই।
ফেসবুক অবশ্য পরে সাফাই দেওয়ার চেষ্টা করে। তাদের দাবি, পোস্টগুলি ভুলবশত ডিলিট হয়েছে। সরকারের এতে কোনো ভূমিকা নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top