জানা গেল উনি এতদিন কী পড়ছিলেন! Pegasus-এ নাম না-করে মোদীকে কটাক্ষ রাহুলের

Rahul-dig-over-Pegasus-Report.jpg

Onlooker desk: পেগ্যাসাস (Pegasus) বিতর্কে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করলেন রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। রবিবার এই বিতর্ক সামনে এসেছে। একটি রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ৪০ জন ভারতীয় সাংবাদিক-সহ প্রায় ৩০০ জনের ফোনে আড়ি পাতার খবর। তার পর থেকেই পড়েছে শোরগোল। সরকার ছাড়া অন্যদের পক্ষে এই স্পাইওয়্যার ব্যবহার সম্ভব নয়।
রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) ছাড়াও ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব-সহ একাধিক বিখ্যাত ব্যক্তির নাম উঠে এসেছে আড়ি পাতার তালিকায়।
এই পরিস্থিতিতে রাহুলের টুইট — এখন জানা গেল উনি এতদিন কী পড়ছিলেন। আপনাদের ফোনের সবকিছু! নাম না করে মোদীকেই তিনি নিশানা করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে। গত সপ্তাহে একটি টুইটে রাহুল জানতে চান, তাঁর ফলোয়াররা কী পড়ছেন। সেই টুইটের জবাবেই এই টুইট করেন রাহুল (Rahul Gandhi)।
রবিবার ‘দ্য ওয়্যার’ ছাড়াও ওয়াশিংটন পোস্ট-সহ ১৬টি আন্তর্জাতিক পাবলিকেশনে ‘পেগ্যাসাস (Pegasus) রিপোর্ট’ প্রকাশিত হয়। ওয়াশিংটন পোস্ট, দ্য গার্ডিয়ান, লে মন্ডে-র মতো বিভিন্ন প্রথম সারির মিডিয়া তা প্রকাশ করে। তদন্তটি চালিয়েছে ফরবিডেন স্টোরিজ নামে প্যারিসের একটি অলাভজনক মিডিয়া সংস্থা ও অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। বিশ্বজুড়ে ৫০ হাজার ফোন নম্বরে আড়ি পাতার অভিযোগ ওঠার পরে এই তদন্ত চালায় ফরবিডেন স্টোরিজ এবং অ্যামনেস্টি।
পেগ্যাসাস (Pegasus) স্পাইওয়্যার ইজরায়েলি সংস্থা এনএসও গ্রুপের তৈরি। এই টেক ফার্ম প্রত্যাশিত ভাবেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। সেগুলি ভ্রান্ত ধারণা ও তত্ত্বের ভিত্তিতে তোলা হচ্ছে বলে পাল্টা দাবি এনএসও-র। তারা জানিয়েছে, অপরাধ ও সন্ত্রাসমূলক কাজকর্ম ঠেকাতে বিভিন্ন সরকারকে এ ভাবে সাহায্য করা হয়।
কেন্দ্রীয় সরকারও পেগ্যাসাস (Pegasus) রিপোর্ট খারিজ করে দিয়েছে। এর সঙ্গে তাদের কোনও যোগ নেই বলে সরকারের দাবি। এ ব্যাপারে ওয়াশিংটন পোস্টের ইন্ডিয়া ব্যুরো চিফ জোয়ানা স্লেটারকে একটি বার্তা পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় ইলেকট্রনিক্স ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক। মন্ত্রকের অতিরিক্ত সচিব রাজেন্দ্র কুমার ওই বার্তা পাঠিয়েছেন।
রাজেন্দ্র লিখেছেন — ভারত একটি বিশাল গণতন্ত্র। দেশের প্রতিটি নাগরিকের মৌলিক অধিকার হিসাবে গোপনীয়তার অধিকার বজায় রাখতে আমরা বদ্ধপরিকর। সেই লক্ষ্যকে আরও একটু এগিয়ে নিয়ে যেতে পার্সোনাল ডেটা প্রোটেকশন বিল, ২০১৯ এবং আইটি (ইন্টারমিডিয়ারি গাইডলাইনস অ্যান্ড ডিজিটাল মিডিয়া এথিক্স কোড) রুল ২০২১ আনা হয়েছে।
এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপও। হোয়াটসঅ্যাপের প্রধান উইল ক্যাথকার্ট এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন। তাঁর মতে, বিভিন্ন সংস্থা এবং বিশেষত সরকারের উচিত এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া। উইলের মতে, এ ব্যাপারে আন্তর্জাতিক স্তরে আওয়াজ তোলা দরকার।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top