১৮-৪৪ এর টিকাকরণ পদ্ধতি ‘হঠকারী ও যুক্তিহীন’, সুপ্রিম-নিশানায় কেন্দ্র

Supreme-Court-of-India.jpg

সুপ্রিম কোর্ট

Onlooker desk: ৪৫ ঊর্ধ্বদের বিনা পয়সায় টিকা আর ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সিদের জন্য টাকা দিয়ে তা কেনার ব্যবস্থা করা প্রাথমিক ভাবে ‘যুক্তিহীন ও হঠকারী’ বলে জানাল সুপ্রিম কোর্ট। এ ছাড়াও নানাবিধ ফাঁকফোকরের কথা উল্লেখ করেছে সর্বোচ্চ আদালত। পাশাপাশি কেন্দ্রকে টিকাকরণ পদ্ধতির পুনর্মূল্যায়ন করে এ বছরের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ভ্যাকসিনের জোগান সম্পর্কে পথনির্দেশ জমা দিতে বলেছে সুপ্রিম কোর্ট।
এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সরকার সকলকেই টিকা দেবে বলে জানিয়েছে। যদিও তা নিয়ে বিরোধী এবং সমালোচকরা নানাবিধ প্রশ্ন তুলেছেন।
টিকাকরণের বিষয়টিকে ‘অত্যন্ত জরুরি’ বলে মন্তব্য করে কোর্ট জানিয়েছে, বর্তমানে ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সিরা কেবল করোনায় আক্রান্তই হচ্ছেন না, সংক্রমণের মারাত্মক প্রভাব পড়ছে তাঁদের উপর। এমনকী দীর্ঘদিন তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি থাকতে হচ্ছে, কোনও কোনও ক্ষেত্রে দুর্ভাগ্যজনক মৃত্যুও হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছে সর্বোচ্চ আদালত। বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে নির্দিষ্ট বয়সের টিকাকরণে প্রাধান্য দেওয়া হলেও অতিমারীর প্রকৃতিতে পরিবর্তনের কারণে এই অল্পবয়সি জনসংখ্যাকেও টিকা দেওয়া দরকার বলে কোর্টের মত।
এই সূত্রেই আদালত ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সিদের অর্থের বিনিময়ে টিকাকরণ পদ্ধতিকে ‘হঠকারী ও যুক্তিহীন’ বলেছে সর্বোচ্চ আদালত। স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে এই মামলা গ্রহণ করে সুপ্রিম কোর্ট। পদ্ধতিগত বিষয়ের বাস্তবায়নে যাতে সর্বোচ্চ আদালত মতামত না দেয়, কেন্দ্রের সেই যুক্তিরও পাল্টা দেওয়া হয়েছে। বিচারপতিরা লিখেছেন — পদ্ধতিগত সিদ্ধান্তে নাগরিকদের সাংবিধানিক অধিকার খর্ব হলে আদালত নীরব দর্শক হয়ে থাকতে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top