দেশ নেহরুর কাছে ঋণী: স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে বললেন প্রধানমন্ত্রী

Modi-Nehru.jpg

Onlooker desk: স্বাধীনতা দিবসের (Independence Day) ভাষণে দেশের মহান নেতাদের স্মরণ করতে গিয়ে মহাত্মা গান্ধীর পাশাপাশি জওহরলাল নেহরুরও (Jawaharlal Nehru) নাম উল্লেখ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রী রবিবার বলেন, ‘ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী নেহরু-জি হোন, দেশকে একত্রিত করার কারিগর সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল হোন বা ভবিষ্যতের পথ প্রদর্শক বাবাসাহেব আম্বেদকর — দেশ তাঁদের সকলের প্রতি ঋণী।’
শনিবারের পর রবিবারও মোদী (Narendra Modi) জানান, ১৪ অগস্ট দিনটিকে বিভাজন বিভীষিকা স্মৃতি দিবস হিসাবে পালন করা শুরু হল।
দেশভাগের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা স্বাধীনতা উদযাপন করি। কিন্তু গত শতকের অন্যতম বড় বেদনা, দেশভাগের যন্ত্রণাকে আজও ভুলতে পারি না। মানুষকে সবচেয়ে অমানবিক কষ্টের ভিতর দিয়ে যেতে হয়েছে সে সময়ে।
বিজেপি-র সরকার বিভিন্ন সময়ে কংগ্রেস এবং নেহরুকে (Jawaharlal Nehru) দেশভাগের জন্য কাঠগড়ায় তুলেছে। শনিবারই কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি বলেছেন, ‘দেশভাগের জন্য যারা দায়ী, তারা কোনওদিন এর যন্ত্রণা, আতঙ্ক বুঝতে পারবে না। একদিকে মানুষের এই তীব্র কষ্ট, অন্যদিকে দেশভাগের জন্য একদল লোকের পুরস্কারপ্রাপ্তি। কোন দল যে দেশভাগের জন্য পুরস্কৃত হয়েছিল, সেটা আমি আর আলাদা করে উল্লেখ করতে চাই না।’ এর পরদিনই আবার মোদী বললেন, দেশের মানুষ নেহরুর (Jawaharlal Nehru) কাছে ঋণী!
পাশাপাশি লালকেল্লায় তাঁর বক্তব্য, মাতঙ্গিনী হাজরা ছিলেন অসমের বাসিন্দা! পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের মাতঙ্গিনীকে অসমের মানুষ হিসাবে উল্লেখ করায় আসরে নেমেছে তৃণমূল।
তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ এ নিয়ে টুইট করেন। তাঁর দাবি, মোদী (Narendra Modi) অন্যের লিখে দেওয়া নোট পড়ে ‘নাটক করেন’। তাঁর কোনও আবেগ নেই। মোদীকে (Narendra Modi) এ জন্য ক্ষমা চাইতে হবে। নাম না করে এ প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীকেও বেঁধেন কুণাল।
বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য মোদীর এই মন্তব্যকে ‘ছোট ভুল’বলে সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন।
এ দিকে, মোদী এ দিন ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসে (Independence Day) ৭৫টি বন্দে ভারত ট্রেন চালানোর কথা ঘোষণা করেন। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলিকে জোড়ার জন্য এই ট্রেন চালানো হবে বলে জানিয়েছেন মোদী।
৭৫ সপ্তাহ ধরে ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’ পালন করছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই সময়ের মধ্যেই দেশের প্রতিটি প্রান্তকে যুক্ত করার লক্ষ্যে বন্দে ভারত ট্রেন চালানোর কথা ঘোষণা করেন মোদী।
তিনি বলেন, ‘আজ দেশে যে গতিতে নতুন বিমানবন্দ হচ্ছে, উড়ান প্রকল্পে বিমানের মাধ্যমে যুক্ত হচ্ছে দেশের প্রতিটি কোণ, তা অভূতপূর্ব।’ নতুন রেল প্রকল্পে দেশের উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিও যুক্ত হবে বলে জানিয়েছেন মোদী। উত্তর-পূর্বের প্রতিটি রাজ্যের রাজধানীকে জুড়বে রেল লাইন। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ, মায়ানমার ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সঙ্গেও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিকে যুক্ত করার কথা জানিয়েচেন মোদী।
নতুন ভারত গড়ে তুলতে ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস’-এর পাশাপাশি ‘সবকা প্রয়াস’-এরও ডাক দেন প্রধানমন্ত্রী।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top