সংসদে বিরোধীদের আচরণে ক্ষুব্ধ মোদী, দলীয় সাংসদদের বললেন সংযত থাকতে

Narendra-Modi.jpg

Onlooker desk: সংসদের উভয় কক্ষের কাজ ব্যাহত করার অভিযোগে বিরোধীদের নিশানা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। একই সঙ্গে বিজেপির (BJP) সাংসদদের সংযত থাকার নির্দেশ দিলেন।
বিজেপির (BJP) পার্লামেন্টারি পার্টির বৈঠক (Parliamentary Party meeting) ছিল মঙ্গলবার। সেখানে মোদীর বক্তব্য, সংসদের সম্মান যাতে বজায় থাকে, সেটা নিশ্চিত করার দায়িত্ব সাংসদদের।
এ দিনের বৈঠকে (Parliamentary Party meeting) মোদী (Narendra Modi) ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অমিত শাহ, রাজনাথ সিং, নির্মলা সীতারামনের মতো কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা। এবং দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।
সূত্রের খবর, পার্লামেন্টারি পার্টির বৈঠকে (Parliamentary Party meeting) মোদী (Narendra Modi) এ দিন বিরোধীদের একহাত নেন। সংসদের কাজ ব্যাহত করার জন্য তাদের দায়ী করেন। এতে সংসদ, সংবিধান, গণতন্ত্র ও জনগণের অসম্মান হচ্ছে বলেও বক্তব্য মোদীর।
গত দু’সপ্তাহ ধরেই সংসদের কাজকর্ম থমকে যাওয়া নিয়ে সরব হয়েছেন মোদী (Narendra Modi)। অধিবেশনকে বিপথে চালিত করতে যে বিরোধীরা সচেষ্ট, সেটা ‘প্রকাশ’ করার কথাও বলেন নিজের দলের সাংসদদের। মঙ্গলবারের বৈঠকেও ফের সংসদে সংযত থাকার কথা বলেছেন মোদী। সংসদের কাজের জন্য উপস্থিত থাকতে হবে। কিন্তু কোন প্ররোচনায় পা দেওয়া যাবে না, এই হল মোদীর বার্তা।
কিছু বিরোধী সাংসদের আচরণে প্রধানমন্ত্রী ক্ষুব্ধ। সংবাদমাধ্যমে এ কথা জানান সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী।
সপ্তাহ দেড়েক আগে অসংসদীয় আচরণের জন্য গোটা বাদল অধিবেশন থেকে সাসপেন্ড করা হয় তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেনকে। কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব পেগ্যাসাস নিয়ে বিবৃতি পড়ছিলেন। সেই সময়ে তাঁর হাত থেকে বিবৃতি কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে হাওয়ায় উড়িয়ে দেন শান্তনু। লোকসভাতেও বেশ ক’জন বিরোধী সাংসদ কাগজ ছিঁড়ে চেয়ারকে লক্ষ করে হাওয়ায় টুকরোগুলো উড়িয়ে দেন।
এ ধরনের আচরণ মোদী (Narendra Modi) ভালো ভাবে নেননি। যোশী জানান, বৈঠকে (Parliamentary Party meeting) প্রধানমন্ত্রী বলেছেন — কাগজ ছেঁড়া, টুকরো ওড়ানো এবং তারপরে ক্ষমা না যাওয়া ঔদ্ধত্যের প্রকাশ। পাশাপাশি ‘পাপড়ি চাট বানাচ্ছে’র মতো মন্তব্যও অসম্মানজনক বলে মত মোদীর। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভি মুরলীধরনও প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্যের কথা জানান।
তবে এ ক্ষেত্রে ‘পাপড়ি চাট’ কটাক্ষের প্রবক্তার নাম উল্লেখ করেননি কেউ। সংসদে যে রকম দ্রুততায় একের পর এক বিল পাশ হয়ে যাচ্ছে, তাকে কটাক্ষ করে ওই টুইট করেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। তাঁর শ্লেষ — বিল পাশ করা হচ্ছে, নাকি পাপড়ি চাট বানাচ্ছে! মুরলীধরনের দাবি, এ প্রসঙ্গে মোদী বলেছেন, ‘এ ধরনের মন্তব্য সংসদের পক্ষে অবমাননাকর। মাননীয় প্রতিনিধিদের জন্যও অশোভনীয়।’
সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন এ দিন অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানো নিয়ে একটি প্রেজেন্টেশন দেন। করোনা অতিমারীতে বিপর্যস্ত অর্থনীতি জুন-জুলাইয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বলে নির্মলার দাবি। অর্থনীতির দ্রুত অগ্রগতি হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top