টিকা নিন, দেশবাসীকে উৎসাহী করতে ১০০ ছুঁইছুঁই মায়ের উদাহরণ নমোর

WhatsApp-Image-2021-05-20-at-12.52.23-PM.jpeg

Onlooker desk: টিকা নিতে দেশকে উদ্বুদ্ধ করতে নবতিপর মায়ের উদাহরণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। জানালেন, তাঁর মা এত বয়সেও টিকা নিয়েছেন। তাই সকলেই যেন আশঙ্কা কাটিয়ে নিশ্চিন্তে টিকা নেন। গুজবে কান না দেন। আজ, রবিবার মন কি বাত (Mann Ki Baat)-এ এ কথা জানান প্রধানমন্ত্রী।
মোদী এ দিন বলেন, ‘সকলের কাছে আবেদন — বিজ্ঞানে ভরসা রাখুন। আমাদের বিজ্ঞানীদের উপর ভরসা রাখুন। এত মানুষ টিকা নিয়েছেন। আমি দু’টি ডোজই নিয়েছি। আমার মায়ের প্রায় ১০০ বছর বয়স। তিনিও দু’টি ডোজ নিয়েছেন। ভ্যাকসিন নিয়ে কোনও নেতিবাচক গুজবে কান দেবেন না দয়া করে।’ আজ দেশবাসীর উদ্দেশে ৭৮ তম মন কি বাত (Mann Ki Baat) ছিল মোদীর। একমাত্র টিকার সাহায্যেই মারণ কোভিডের হাত থেকে রক্ষা মিলবে বলেও জানান।
মোদীর সংযোজন, ‘যারা টিকা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে, তাদের ছড়াতে দিন। আমরা আমাদের কাজ করব। এবং নিজেদের ও আশপাশের সকলের টিকাকরণ নিশ্চিত করব। কোভিড-১৯ এর চোখরাঙানি এখনও রয়েছে। আমাদের টিকা নিতে হবে। কোভিড-১৯ প্রোটোকলও মানতে হবে।’
সরকারি হিসাবে, এ পর্যন্ত প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার ৫.৬ শতাংশ টিকার দু’টি ডোজ নিয়েছেন। তার মধ্যেই দেশে নতুন ভ্যারিয়ান্ট হাজির। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়ান্ট ভোল বদলে হয়েছে ডেল্টা প্লাস। যা আরও সংক্রামক হতে পারে বলে আশঙ্কা। যদিও তা নিয়ে আরও গবেষণা চলছে। কিন্তু টিকাকরণ ছাড়া এই বিপদের হাত থেকে মুক্তি নেই। এখনও অর্ধেকের বেশি জনসংখ্যার টিকা নেওয়া হয়নি।
শনিবার এ নিয়ে একটি বৈঠক করেন মোদী। সেখানে তিনি টিকাকরণ কর্মসূচিকে আরও বিস্তারিত করার কথা বলেন। প্রয়োজনে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলির সাহায্যে ভ্যাকসিনেশনের পরামর্শ দেন আধিকারিকদের। জনসংখ্যার নিরিখে টিকাকরণের হার এখনও অনেকটাই কম।
প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর একটি পরিসংখ্যান দিয়েছে। যা অনুযায়ী, এ পর্যন্ত দেশে ১২৮টি জেলায় ৪৫ ঊর্ধ্ব ৫০ শতাংশের টিকাকরণ হয়েছে। আর ১৬টি জেলায় এই হার ৯০-এর ঊর্ধ্বে।
ওই বিবৃতিতে দাবি করা হয়েচে, টিকাকরণের গতি বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী সন্তুষ্ট। প্রসঙ্গত, গত সোমবারই নতুন টিকানীতি চালু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী টিকাকরণের এই হার ধরে রাখার উপরে জোর দিয়েছেন।
কেন্দ্রের আশা, ১৮৮ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ পাওয়া যাবে। অন্তত পাঁচটি উৎপাদনকারী সংস্থা তা দেবে। এতে এ বছরের মধ্যে প্রাপ্তবয়সক জনসংখ্যার টিকাকরণ সম্পন্ন করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top