ধর্ষিতাকে বিয়ের ছ’মাস পরে গুহায় নিয়ে গিয়ে যৌনসঙ্গমের পর হত্যা, গ্রেপ্তার

Nainital-rape-murder.jpg

Onlooker desk: তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের (rape) অভিযোগ এনেছিলেন তরুণী। কিন্তু সেই তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে জেল থেকে ছাড়া পেয়েছিল অভিযুক্ত। গত বছর ডিসেম্বরে দু’জনের বিয়েও হয়। সেই তরুণীকেই হত্যার (murder) অভিযোগে দিল্লির বাসিন্দা ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ।
খুন করে স্ত্রীর দেহ নৈনিতাল-হলদওয়ানি (Nainital) হাইওয়ের ধারে ফেলে দেয় সে। সোমবার সন্ধ্যায় জায়গাটি পুলিশকে দেখিয়ে দেয় অভিযুক্ত। তারপরেই গ্রেপ্তার করা হয় তাকে।
দিল্লির পুলিশ অফিসারদের দলটিকে নৈনিতাল অভিযানে নেতৃত্ব দেন সাব-ইনস্পেক্টর নরেন্দ্র সিং। তিনি বলেন, ‘অভিযুক্ত রাজেশের বিরুদ্ধে প্রথমে ধর্ষণের (rape) অভিযোগ এনেছিলেন ওই মহিলা। যার ভিত্তিতে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে জেলে পাঠানো হয়। পরে সে মুচলেকা দিয়ে জানায়, ওই তরুণীকে বিয়ে করবে। মুচলেকার ভিত্তিতে জেল থেকে ছাড়া পায় রাজেশ। গত বছর ডিসেম্বরে দু’জনের বিয়ে হয়।’
কিন্তু গত মাসে ওই মহিলার নামে নিখোঁজ ডায়েরি করে তাঁর পরিবার। ১১ জুন থেকে খোঁজ মিলছিল না মহিলার। ১৫ জুন দিল্লির দ্বারকা থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন মহিলার বাবা-মা। নৈনিতালের (Nainital) তাল্লিতাল থানার ওসি বিজয় মেহতা এ কথা জানান।
মহিলার ফোনের রেকর্ড ঘেঁটে তাঁর নিখোঁজ হওয়ার সঙ্গে নৈনিতালের যোগ পায় পুলিশ। বিজয় জানান, তদন্তকারীরা দেখেন, শেষ লোকেশন দেখাচ্ছে নৈনিতালের (Nainital) হনুমানগড়ে। গত ১২ জুন। তারপরে আর হদিস নেই মহিলার।
এর পরে তাঁর স্বামী রাজেশের ফোনের রেকর্ড চেক করা হয়। দেখা যায়, ওই একই সময়ে নৈনিতালের (Nainital) এক জায়গায় ছিলেন তিনিও। প্রথমে স্ত্রীর নিরুদ্দেশ হওয়ার ব্যাপারে সে কিছুই জানে না বলে দাবি করে রাজেশ। কিন্তু পরে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে ভেঙে পড়ে স্বীকার করে খুনের কথা। বিজয় জানান, অভিযুক্তের দাবি ওই মহিলা ও তাঁর মা তাকে হেনস্থা করছিলেন। সে কারণেই এই খুন (murder)।
তদন্তকারীরা জানান, উধম সিং নগরে মাকে দেখতে যাবে বলে স্ত্রীকে নিয়ে বেরিয়েছিল রাজেশ। সেখান থেকে পৌঁছয় নৈনিতালে (Nainital)। ১২ জুন তারা নৈনিতাল (Nainital) ছাড়ে। স্ত্রীর ফোন অফ করে দেয় রাজেশ। যৌনসঙ্গম করতে চায় বলে স্ত্রীকে একটি জনবিহীন গুহায় নিয়ে যায় সে। সেখানে যৌনসঙ্গমও করে। তারপরে গলা টিপে খুন করে স্ত্রীকে।
আদতে উধম সিং নগরের বাসিন্দা রাজেশ বর্তমানে দিল্লির বাসিন্দা। তার বিরুদ্ধে ৩০২ (খুন) এবং ২০১ (তথ্যপ্রমাণ লোপাট) ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top