দুর্ঘটনা না হত্যা? ভাইরাল ভিডিয়ো ক্লিপে রহস্য ঝাড়খণ্ডের বিচারকের মৃত্যুতে

Jharkhand-judge-Uttam-Anand.jpg

Onlooker desk: ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) এক বিচারকের (Judge) মৃত্যু দুর্ঘটনা না হত্যা, তা নিয়ে নতুন জল্পনা তৈরি হল বৃহস্পতিবার। একটি ভিডিয়ো ক্লিপের সূত্রে।
বুধবারও রোজকার মতো মর্নিং ওয়াকে বেরিয়েছিলেন ডিস্ট্রিক্ট অ্যান্ড অ্যাডিশনাল জাজ (Judge) উত্তম আনন্দ। সেই সময় একটি ‘চিহ্নিত না-হওয়া’ গাড়ি ধানবাদে তাঁর বাড়ি থেকে মাত্র কিলোমিটার দূরে তাঁকে ধাক্কা মারে।
ভোর তখন ৫টা বাজবে। রাস্তাঘাটে লোক প্রায় নেই বললেই চলে। সেই সময়ে একটি টেম্পো বাঁক নিয়ে সোজা গিয়ে তাঁকে ধাক্কা মারে। বিচারক (Judge) মাটিতে পড়ে গেলে সেটি বেরিয়ে যায়। টেম্পোর ওই অভিযুক্ত চালক এবং তার এক সঙ্গীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।
বিষয়টি বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court of India) ওঠে। প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা জানান, তিনি ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টের সঙ্গে কথা বলেছেন। তবে এই পর্বে কোনও পদক্ষেপ করতে চাইছেন না। তিনি বলেন, ‘আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত এবং প্রয়োজনে দেখবও।’
বিচারক উত্তম আনন্দকে রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তার ধারে পড়ে থাকতে দেখেন এক ব্যক্তি। তিনিই তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যান। পুলিশ জানিয়েছে, হাসপাতালে মৃত্যু হয় বিচারকের। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ পর্যন্ত তাঁর পরিচয় জানা যায়নি।
এ দিকে, সকাল সাতটা বেজে গেলেও বিচারক উত্তম (Uttam Anand) না-ফেরায় তাঁর বাড়ির লোক নিখোঁজ ডায়েরি করেন। পুলিশ তদন্তে নেমে বুঝতে পারে, হাসপাতালে অজ্ঞাতপরিচয় ওই দেহ আদতে বিচারকের।
পুলিশ জানিয়েছে, ফুটেজে এটা স্পষ্ট যে টেম্পোটি ইচ্ছে করে বিচারক উত্তম আনন্দকে (Uttam Anand) ধাক্কা দিয়েছে। তদন্তে জানা গিয়েছে, বিচারককে ধাক্কা মারার কয়েক ঘণ্টা আগে সেটিকে চুরি করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ভিডিয়ো ক্লিপের জেরে এই ঘটনার বৃহত্তর তদন্তের দাবি উঠেছে।
বিচারক আনন্দের (Uttam Anand) হাতে কী কী কেস ছিল, পুলিস তা খতিয়ে দেখছে। ধানবাদে মাফিয়া হত্যার বেশ কিছু মামলার শুনানি করছিলেন তিনি। সম্প্রতি দুই গ্যাংস্টারের জামিনের আবেদন তিনি খারিজ করে দেন।
বিষয়টি বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court of India) তোলে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন। তার প্রেক্ষিতেই প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা জানান, তিনি ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির সঙ্গে কথা বলেছেন। প্রধান বিচারপতি জানিয়েছেন, তিনি বিষয়টি গ্রহণ করেছেন এবং সেটি বর্তমানে হাই কোর্টে রয়েছে। এই পর্বেহস্তক্ষেপ করলে তদন্ত ব্যাহত হতে পারে বলেও জানান চিফ জাস্টিস।
তার আগে বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে বিষয়টি তুলে আইনজীবী বিকাশ সিং বলেন, ‘বিচার ব্যবস্থার উপরে এ এক ভয়ঙ্কর আক্রমণ। এর তদন্তভার সিবিআইয়ের কাছে যাওয়া দরকার। আমরা স্তম্ভিত। একজন বিচারক মর্নিং ওয়াকে গেলেন এবং তাঁকে ধাক্কা দিয়ে মেরে ফেলা হল! উনি গ্যাংস্টারদের জামিন নিয়ে শুনানি করছিলেন। এটি আইনের স্বাধীনতার উপরে আক্রমণ।’
বিচারপতি চন্দ্রচূড় জানিয়েছিলেন, তিনি প্রধান বিচারপতিকে বিষয়টা জানাবেন। সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court of India) অন্য একটি কোর্টরুমেও এ দিন বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। যে ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে, সেটি সাধারণ সিসিটিভি ফুটেজ নয় বলে অনুমান করা হচ্ছে। কারণ যারা ভিডিয়োটি করেছে, তাদের কণ্ঠস্বর শোনা যাচ্ছে। অনুমান করা হচ্ছে, ভিডিয়োটি ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যেই করা হয়েছে।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top