দেশে কোভিডের বলি প্রায় সাড়ে চার হাজার, মোট মৃত্যু ৩ লক্ষাধিক

CORONA-WORLD1.jpg

Onlooker desk: কোভিডে মৃত্যু তিন লক্ষের গণ্ডি পেরোনোয় রবিবারই ব্রাজিল ও আমেরিকার সঙ্গে এক বন্ধনীতে এসেছে ভারত। ওই দুই দেশেও করোনায় তিন লক্ষাধিক মানুষ মারা গিয়েছেন। মৃত্যু মিছিলের সেই উদ্বেগ বহাল রেখে সোমবার গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৪৫৪ জনের মৃত্যু হলো কোভিডে। নতুন সংক্রামিত ২ লক্ষ ২২ হাজার। ভারতে কেবল এই মাসেই ৮০ লক্ষ নতুন কেস ও ৯০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যুর খবর মিলেছে।
কোভিড-বিধি মানার পাশাপাশি টিকাকরণ ছাড়া এই ভাইরাস মোকাবিলার অন্য পথ নেই। কিন্তু সেই টিকারও চরম আকাল দেশজুড়ে। এই পরিস্থিতিতে রবিবারই অন্যতম খ্যাতনামা ভাইরোলজিস্ট গগনদীপ কাং রবিবার জানিয়েছেন, একলপ্তে অনেক টিকা কেনার ক্ষেত্রে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। কিন্তু অন্যান্য দেশ বসে না থেকে টিকার জোগান বাড়িয়েছে। এখন আর আন্তর্জাতিক বাজারে টিকার সংস্থান সে ভাবে করতে পারছে না নরেন্দ্র মোদীর সরকার। তাঁর প্রশ্ন, ‘অন্যান্য দেশ এক বছরের জন্য টিকা কিনে মজুত করেছে। তা হলে এখন আমরা কিনতে চাই বললেও জোগান আসবে কোথা থেকে?’
এ মাসের ২ তারিখ ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সিদেরও টিকাকরণের আওতায় এনেছিল সরকার। কিন্তু টিকার জোগানই নেই। তাই ১৮ থেকে ৪৪ তো দূর, ৪৫ ঊর্ধ্ব বা যাঁদের দ্বিতীয় ডোজের সময় হয়ে গিয়েছে, তাঁরাও অনেক সময় ভ্যাকসিন পাচ্ছেন না। এ দিকে কেন্দ্র দাবি করছে, ১৯ কোটি ৬০ লক্ষ টিকার ডোজ এ পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে। অথচ দিল্লি-সহ বহু রাজ্য ভ্যাকসিনের আকালের কথা জানিয়েছে। দিল্লি, হরিয়ানা, রাজস্থান, তামিলনাড়ুতে লকডাউন বাড়ানো হয়েছে।
এর মধ্যে মহামারী মোকাবিলায় সেনা সহযোগিতার জন্য প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত। রবিবার ৩০ লক্ষ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। পজিটিভিটি রেট ১১.৫৩ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top