দৈনিক টিকাকরণ হঠাৎ কমে ১৭ লক্ষ, তবে টিকার ডোজে আমেরিকাকে টপকে গেল ভারত

Vaccination.jpg

প্রতীকী চিত্র

Onlooker desk: টিকার ডোজের বিচারে আমেরিকাকে টপকে গেল ভারত। দেশে এ পর্যন্ত টিকার ৩২.৩৬ কোটি ডোজ প্রয়োগ করা হয়েছে। সে জায়গায় আমেরিকা দিয়েছে ৩২.৩৩ কোটি ডোজ। একদিকে করোনা কমেছে। অন্যদিকে এই রেকর্ড টিকাকরণ।
দু’য়ে মিলে এই স্বস্তির খবরেও অবশ্য রয়েছে অস্বস্তি-কাঁটা। কারণ, রবিবার একদিনে টিকাকরণ কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ লক্ষের ঘরে। আগের দিনই তা ছিল ৬৪ লক্ষের ঘরে। হঠাৎ টিকাকরণ হ্রাসের কী কারণ, সেটাই প্রশ্ন।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অবশ্য টুইটে এ প্রসঙ্গ এড়িয়ে গিয়েছেন। তিনি লেখেন — ভারতের টিকাকরণ কর্মসূচি ক্রমশ গতি পাচ্ছে। যাঁরা এই কর্মসূচিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, তাঁদের সকলকে অভিনন্দন। সকলের জন্য ভ্যাকসিন এবং বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে আমরা দায়বদ্ধ।
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ হাজার ১৪৮ জন। মারা গিয়েছেন ৯৭৯ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ২ লক্ষ ৭৯ হাজার ৩৩১। আর মৃত্যু ৩.৯৬ লক্ষ। দ্বিতীয় ঢেউয়ের মারাত্মক বাড়াবাড়ির পর গত কয়েক সপ্তাহে দেশে সংক্রমণ অনেকখানি কমেছে।
এ পর্যন্ত ৫.৬ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক টিকার দু’টি ডোজই পেয়েছেন। এই বিচারে অবশ্য আমেরিকা অনেকটা এগিয়ে। সেখানে জনসংখ্যার ৪০ শতাংশের বেশি টিকার দু’টি ডোজ পেয়ে গিয়েছে। এমনটাই জানাচ্ছে একটি সংবাদসংস্থা।
নতুন টিকানীতির সূচনা হয়েছে গত ২১ জুন। এই এক সপ্তাহে ৩ কোটি ৯১ লক্ষ ডোজ দেওয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্য মন্ত্রক একটি টুইট করেছে। তারা লিখেছে, এই সংখ্যা কানাডা, মালয়েশিয়া, সৌদি আরবের মতো দেশের জনসংখ্যার চেয়েও বেশি।
এ দিকে সুপ্রিম কোর্টের কড়া প্রশ্নের মুখে টিকাকরণের রোডম্যাপ জানিয়েছে ভারত। এ প্রসঙ্গে শনিবার একটি হলফনামা জমা পড়েছে সর্বোচ্চ আদালতে। পাঁচটি উৎপাদনকারী সংস্থার কাছ থেকে ১৮৮ কোটি ডোজ পাওয়া যাবে বলে তারা জানিয়েছে। এ বছরের মধ্যে দেশের ১৮ ঊর্ধ্ব জনসংখ্যার টিকাকরণ সম্পন্ন করা যাবে বলেও আশা।
তবে ভারতের টিকাকরণ কর্মসূচিতে লিঙ্গবৈষম্য প্রকট। দেখা গিয়েছে, এ পর্যন্ত ৫৪ শতাংশ পুরুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। মহিলাদের ক্ষেত্রে সেই হার ৪৬ শতাংশ। এই ফারাক শীঘ্রই ঘোচানোর কথা বলেছেন ন্যাশনাল এক্সপার্ট গ্রুপের চেয়ারপার্সন ডঃ ভি কে পল।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রবিবার ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে সকলকে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানান। নেতিবাচক গুজবে কান না-দেওয়ার পরামর্শও দেন। এ প্রসঙ্গে নিজের ১০০ ছুঁইছুঁই মায়ের উদাহরণ দেন মোদী। বলেন, ‘আমার মা এত বয়সেও টিকার দু’টি ডোজ নিয়েছেন। আপনারাও টিকা নিন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top