স্ত্রীর আবেদনে সাড়া, আদালতের সায়ে শুক্রাণু সংগ্রহ হল গুরুতর অসুস্থ কোভিড রোগীর

sperm.jpg

Onlooker desk: কোভিডে আক্রান্ত হয়ে স্বামী লাইফ সাপোর্টে। ভিট্রো ফার্টিলাইডেশন পদ্ধতিতে তাঁর সন্তানের মা হতে চান স্ত্রী। সে জন্য গুজরাট হাই কোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন তিনি। এ দিকে স্বামী সায় দেওয়ার অবস্থাতেও নেই। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার স্ত্রীর আবেদনে সাড়া দেয় আদালত। ভদোদরার একটি হাসপাতালকে কোর্ট বলে ওই কোভিড রোগীর শুক্রাণু সংগ্রহ করতে।
আদালতের এই নির্দেশকে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। তাদের সবুজ সঙ্কেত পেয়ে প্রক্রিয়া শুরু করে হাসপাতালটি। বুধবার তারা জানায়, ওই কোভিড রোগীর শুক্রাণু সফল ভাবে সংগ্রহ করা গিয়েছে।
হাসপাতালকে যত দ্রুত সম্ভব এই প্রক্রিয়া শুরু করার নির্দেশ দিয়েছিল কোর্ট। সে কারণে নির্দেশ পাওয়ার পরে বিলম্ব করেনি হাসপাতাল। মঙ্গলবারই তৎপর হয় তারা।
হাসপাতালের জোনাল ডিরেক্টর অনিল নাম্বিয়ার বলেন, ‘রোগীর পরিবার এই প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়। কিন্তু যাঁর উপরে এই প্রক্রিয়া প্রয়োগ করা হবে, নিয়ম অনুযায়ী তাঁর অনুমতি প্রয়োজন হয়। কিন্তু এই রোগীর অবস্থা অত্যন্ত সঙ্কটজনক। এবং উনি অনুমতি দিতে অপারগ। তাই আদালতের সবুজ সঙ্কেত ছাড়া আমরা এ কাজ করতে পারতাম না।’
বহু দিন ধরেই কোভিডে ভুগছেন ওই ব্যক্তি। গত ১০ মে থেকে হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন তিনি। আদালতে তাঁর স্ত্রী এ কথা জানিয়েছেন। কিন্তু তার পর থেকে দিনে দিনে অবস্থা খারাপ হয়েছে ওই ব্যক্তির। কোভিড-১৯ এর যাবতীয় উপসর্গ তাঁর মধ্য অত্যন্ত বেশি মাত্রায় প্রকট। অসুস্থতার জেরে ফুসফুস ঠিকঠাক ভাবে কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছে। মাল্টি অরগ্যান ফেলিওর হয়েছে। তাঁর প্রাণ সংশয়ও রয়েছে।
এই পরিস্থিতিতে শুক্রাণুর জন্য হাসপাতালের দ্বারস্থ হয়েছিল পরিবারটি। কিন্তু রোগী অনুমতি দেওয়ার অবস্থায় নেই। তিনি লিখিত ভাবে কনসেন্ট জানাতেও পারবেন না। সে কারণে হাসপাতাল জানায়, এ ক্ষেত্রে আদালতের নির্দেশ প্রয়োজন হবে।
তার পরে আদালতের দ্বারস্থ হন অসুস্থ ব্যক্তির স্ত্রী। জানান, স্বামীর সন্তানেরই মা হতে চান তিনি। গুজরাট হাই কোর্ট তাঁর মামলাটির শুনানি করে। তারা জানায়, ‘অভূতপূর্ব জরুরি পরিস্থিতিতে ইন্টেরিম রিলিফ’ দেওয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করে আদালত। সেই পরিপ্রেক্ষিতে আবেদনকারীর আবেদনে সাড়া দেওয়া হয়। এবং অসুস্থ ব্যক্তির শুক্রাণু সংগ্রহের প্রক্রিয়ায় সম্মত হয় কোর্ট। এবং তারপরে আদালতের নির্দেশে দ্রুত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে হাসপাতাল।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top