রাফাল নিয়ে তদন্তে ফরাসি সরকার, ভারতে চাপ বাড়াচ্ছে কংগ্রেস

IMG-20210704-WA0002.jpg

Onlooker desk: ফের মাথাচাড়া দিল রাফাল তদন্ত। এই ঘটনায় যৌথ সংসদীয় কমিটির তদন্তের দাবি জানিয়েছে কংগ্রেস।
একটি ফরাসি নিউড ওয়েবসাইটের সূত্র ধরে তাদের এই দাবি। সেখানে জানানো হয়েছে, ‘অতি স্পর্শকাতর’ রাফাল ডিলের তদন্তে নিয়োগ করা হয়েছে এক ফরাসি জজকে।
৫৯ হাজার কোটি টাকার এই ডিলে দুর্নীতি ও স্বজনপোষণ হয়েছে বলে অভিযোগ। রাফাল প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিঁধতে ফের তৎপর হয়েছে কংগ্রেস। দিল্লিতে সাংবাদিকদের কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সূরযেওয়ালা বলেন, ‘মোদী এ বার তদন্তের নির্দেশ দিন। রাফালে যে দুর্নীতি হয়েছে, সেটা এ বার স্পষ্ট। ফরাসি সরকারের তদন্তের নির্দেশে কংগ্রেস ও রাহুল গান্ধীর অবস্থানই মান্যতা পেল।’
ভারতে রাফাল জেট বিক্রিতে দুর্নীতি হয়েছে কি না, তা নিয়ে তদন্তের কথা শুক্রবারই জানিয়েছে ফ্রান্সের ন্যাশনাল ফিনানশিয়াল প্রসিকিউটরস’ অফিস। ফ্রান্সের এই আইনি প্রতিষ্ঠান ২০১৩-র ডিসেম্বরে তৈরি হয়। গুরুতর আর্থিক ও অর্থনৈতিক দুর্নীতির তদন্তের স্বার্থে।
সূরযেওয়ালা বলেন, ‘ফরাসি সরকার মেনে নিচ্ছে যে ডিলে দুর্নীতি হয়েছে। তা হলে যেখানে দুর্নীতিটা হলো, সেখানে যৌথ সংসদীয় কমিটির (জেপিসি) তদন্ত হবে না কেন?’
২০১৯-এ এই দুর্নীতিকে হাতিয়ার করে লোকসভা নির্বাচনে নেমেছিল কংগ্রেস। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী রাফাল প্রশ্নে মোদীকে বিদ্ধ করেন। বিষয়টি সামনে আসতে টুইটে সরব হন রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভাদরা।
টুইটে প্রিয়াঙ্কা লেখেন — তিনটি জিনিস বেশিদিন লুকিয়ে রাখা যায় না: সূর্য, চন্দ্র ও সত্য — লর্ড বুদ্ধ।
রাহুল গান্ধী #রাফালস্ক্যাম লিখে টুইটে ফের নিশানা করেন মোদীকে।
বিজেপি প্রত্যাশিত ভাবেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। তাদের দাবি, কংগ্রেস মিথ্যা কথা বলছে। মুখ খোলেন বিজেপির মুখপাত্র সম্বিৎ পাত্র। বলেন, ‘রাহুল গান্ধীর আচরণ দেখে মনে হচ্ছে প্রতিযোগী সংস্থাগুলি তাঁকে বোড়ে হিসাবে ব্যবহার করছে। এ ব্যাপারে উনি প্রথম থেকেই মিথ্যা কথা বলছেন।’
এ প্রসঙ্গে ক্যাগ রিপোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টের রায়ের উল্লেখ করেন তিনি। দু’ক্ষেত্রেই জানানো হয়, রাফাল চুক্তিতে কোনও দুর্নীতি হয়নি।
২০১২-য় ফ্রান্সের দাস্যু অ্যাভিয়েশন প্রাথমিক ভাবে ভারতে ১২৬টি জেট পাঠানোর কনট্র্যাক্ট পায়। হিন্দুস্তান এরোনটিকস লিমিটেডের (হ্যাল) সঙ্গে আলোচনা শুরু হয় তাদের। পরে হ্যালের জায়গায় আনা হয় রিলায়েন্স গোষ্ঠীকে। ৩৬টি জেটের জন্য নতুন চুক্তি চূড়ান্ত হয়। ২০১৫-র এপ্রিলে ফ্রান্সে যান মোদী। তখন যৌথ বিবৃতিতে এই ৩৬টি জেট কেনার কথা ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top