বোনের হত্যার বদলা? চিকিৎসক দম্পতিকে খুন করল ভাই

DOCTOR.jpeg

সি সি ক্যামেরায় ধরা পড়া খুনের দৃশ্য

Onlooker desk: শহরের ব্যস্ত মোড়ে এক চিকিৎসক দম্পতিকে গুলি করে হত্যা করল বাইকে চড়ে আসা দুই ব্যক্তি। শুক্রবার বিকেল পৌনে পাঁচটা নাগাদ রাজস্থানের ভরতপুরে ঘটনাটি ঘটে। দুই যুবক বাইকে দম্পতিকে ওভারটেক করে গাড়ি আটকায় বলে সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। তারপরে হেঁটে তাঁদের গাড়ির কাছে যায়। চিকিৎসক গাড়ির কাচ নামাতেই একাধিক বার গুলি চালিয়ে বাইকে চড়েই পালিয়ে যায় দু’জন। অভিযুক্তদের নাম অনুজ গুর্জর ও মহেশ গুর্জর।
বদলা নেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই হত্যা বলে পুলিশ জানিয়েছে। বছর ছেচল্লিশের সুদীপ গুপ্তা ও তাঁর স্ত্রী সীমা (৪৪) শুক্রবার গাড়ি করে বেরিয়েছিলেন। তখনই ঘটে ঘটনাটি। অটল বাঁধ থানার স্টেশন হাউজ অফিসার রাজেন্দ্র কুমার জানান, ২০১৯-এ এক তরুণীর মৃত্যুর ঘটনায় নাম জড়ায় সন্দীপ ও সীমার। সন্দীপের মা-ও জড়িয়ে পড়েন।
চিকিৎসক দম্পতি একটি বেসরকারি হাসপাতালের কর্ণধার। বছরকয়েক আগে তরুণীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন চিকিৎসক ভদ্রলোক। তাঁকেই খুনের অভিযোগে গত বছর পর্যন্ত জেলে ছিলেন সন্দীপ ও সীমা। তরুণীর সন্তানকেও হত্যা করা হয়েছিল বলে অভিযোগ।
ভরতপুরের পুলিশ সুপার দেবেন্দ্র বিষ্ণোই জানান, প্রাথমিক ভাবে এটিকে বদলার ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ অভিযুক্ত দু’জনই তরুণীর ভাই। বিষ্ণোইয়ের কথায়, ‘সীমা ও তাঁর শাশুড়ি ওই তরুণী এবং তাঁর ছেলেকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারেন। সন্দীপ, সীমা ও সন্দীপের মা, তিনজনই গ্রেপ্তার হন। আপাতত তাঁরা জামিনে মুক্ত।
অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে তদন্ত শুরু হয়েছে। তল্লাশি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top