কোভিড রোগীর মৃত্যুর পর ঝাঁটা, বাসনপত্র দিয়ে ডাক্তারকে মার অসমে

IMG-20210602-WA0002.jpg

Onlooker desk: চিকিৎসাধীন কোভিড রোগীর মৃত্যুর পর তাঁর পরিজনের হাতে চরম নিগৃহীত হলেন এক চিকিৎসক। বাসনপত্র থেকে ঝাঁটা, হাতের সামনে যা মিলেছে, তাই দিয়ে ওই চিকিৎসককে মারাধর করা হচ্ছে বলে একটি ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটে মধ্য অসমের হোজাইয়ে। আহত অবস্থায় আপাতত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সেউজ কুমার সেনাপতি নামে ওই ডাক্তার। ঘটনার কথা সামনে আসতেই ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। চিকিৎসকরা তো বটেই, সব ক্ষেত্রের মানুষ সরব হয়েছেন।
মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা একে ‘বর্বরোচিত’ বলে চিহ্নিত করে অসম পুলিশকে দ্রুত অভিযুক্তদের ধরতে নির্দেশ দিয়েছেন। টুইটে তিনি লেখেন — কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রথম সারির যোদ্ধাদের উপর এমন বর্বরোচিত আক্রমণ প্রশাসন কিছুতেই বরদাস্ত করবে না। স্পেশ্যাল ডিরেক্টর জেনারেল অফ পুলিশ জিপি সিং জানিয়েছেন, ধরপাকড় শুরু হয়ে গিয়েছে। মূল অভিযুক্ত-সহ বেশ ক’জনকে ইতিমধ্যে ধরা হয়েছে।
হোজাইয়ের উদালি সিসিসি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার মৃত্যু হয় ওই কোভিড রোগীর। সেউজ সেখানেই কর্তব্যরত। ওই মহিলার প্রায় ২০ জন আত্মীয় চিকিৎসকের উপর চড়াও হয়। ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, তাঁকে ঝাঁটা, বাসনপত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর করা হচ্ছে। ডাক্তার পড়ে গিয়েছেন মাটিতে। সেই অবস্থায় তাঁকে লাথি মারা হচ্ছে। এক পুলিশকর্মীকে দেখা গেলেও তিনি তা আটকানোর কোনও ব্যবস্থা করছেন না।
ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের হোজাই ইউনিটের তরফে ডেপুটি কমিশনারকে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার বেলা ১১টায় রোগীকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘণ্টাতিনেক বাদে, দুপুর দুটোয় তাঁর মৃত্যু হয়। ডাক্তারকে মারধরেই না থেমে রোগীর পরিজনেরা ওই কেন্দ্র, যন্ত্রপাতিও ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ। প্রত্যেক হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর দাবি করেছে আইএমএয় ডিপি সিং টুইটে জানিয়েছেন — হোজাইয়ের পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, এই ঘটনায় জড়িত প্রত্যেককে গ্রেপ্তার করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top