শর্ত রেখেই সোমবার থেকে ছন্দে ফিরবে রাজধানী, তৃতীয় ঢেউ ঠেকাতে প্রস্তুতি

Arvind-Kejriwal.jpg

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল

Onlooker desk: সোমবার ভোর পাঁচটা পর্যন্ত লকডাউন জারি রয়েছে দিল্লিতে। তারপরে ধীরে ধীরে তা শিথিল হবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পাশাপাশি, তৃতীয় ঢেউয়ের জন্যও দিল্লি প্রস্তুত হচ্ছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।
এক নজরে দেখে নেওয়া যাক রাজধানীর আনলকিং প্ল্যান —
• মল ও শপিং সেন্টারগুলি জোড়-বিজোড় পদ্ধতিতে খুলবে। অর্থাৎ অর্ধেক দোকান একদিন, বাকি অর্ধেক অন্যদিন খোলা হবে। যে ভাবে পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে জোড়-বিজোড় পদ্ধতিতে গাড়ি চলাচলের নিয়ম চালু করেছিল দিল্লি।
• খুচরো দোকান অর্থাৎ মল বা শপিং সেন্টারে যেগুলি নেই, সেগুলি সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা যাবে। এ ক্ষেত্রে জোড়-বিজোড় নিয়ম কার্যকর হবে না।
• বেসরকারি অফিসে ৫০ শতাংশ কর্মীর হাজিরা চালু করা যেতে পারে। পাশাপাশি ওয়ার্ক ফ্রম হোম বজায় রাখার উপরে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন কেজরিওয়াল।
• সরকারি অফিসের ক্ষেত্রে ক্যাটেগরি ‘এ’ কর্মীরা রোজই যেতে পারবেন। কিন্তু বাকিদের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ হাজিরার নিয়ম মানতে হবে কঠোর ভাবে।
• মেট্রো চলবে। তবে মোট আসনের ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে।
• পরিস্থিতি আরও উন্নত হলে ছাড়ও বাড়ানো হবে।
এরই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানান, তৃতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণে শিশুদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা হচ্ছে। বিশেষ প্যানেল ও টাস্ক ফোর্সও তৈরি হচ্ছে। কেজরিওয়াল বলেন, ‘কোভিড-১৯ এর তৃতীয় ঢেউয়ের জন্য আমরা প্রস্তুতি রাখছি। সে ক্ষেত্রে দিনে ৩৭ হাজার পর্যন্তও সংক্রমণের খবর মিলতে পারে। সেই হিসাবেই তৈরি হচ্ছি আমরা।’
তিনি জানান, সরকার ৬৪টি অক্সিজেন প্লান্ট তৈরি করছে। এ ছাড়া, রাজধানীতে কোন স্ট্রেন ঢুকছে, তার উপরে নজরদারির জন্য দু’টি জিনোম ট্র্যাকিং কেন্দ্রও তৈরি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। শুক্রবার একদিনে দিল্লিতে ৫২৩টি নতুন করোনা কেসের হদিস মিলেছে। মারা গিয়েছেন ৫০ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top