জুলাই থেকে বাড়তে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের ডিএ, খুশির হাওয়া

DA-to-be-hiked.jpg

Onlooker desk: কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের জন্য সুখবর। অর্থ মন্ত্রকের সূত্র একটি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, আগামী ১ জুলাই থেকে মোটামুটি ২৮ শতাংশ হারে মহার্ঘভাতা দেওয়া হবে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের। মহার্ঘভাতা বা ডিএ-র হার বাড়ানো হোক, এই চাহিদা অনেকদিন ধরেই ছিল কর্মচারীদের। তাতেই সায় দিল কেন্দ্র। তবে কোনও এরিয়ার থাকবে না। ৩০ জুনের মূল্য সূচকের হিসাবে ১ জুলাই থেকে মোটের উপর ২৮ শতাংশ হারে ডিএ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে অর্থ মন্ত্রকের সূত্র। হার নির্ধারণে ওই সূচকের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকবে।
২০১৯-এর জুলাই থেকে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা ১৭ শতাংশ হারে ডিএ পাচ্ছেন। ২০২০-র জানুয়ারিতে হার সংশোধনের কথা ছিল। কিন্তু তারপরেই করোনা অতিমারী চলে আসায় হার বাড়ানো সম্ভব হয়নি। সেই থেকে ডিএ বৃদ্ধির বিষয়টি বকেয়া। ২০২০-র জানুয়ারি, জুলাই এবং এ বছরের জানুয়ারি — ডিএ-র তিনটি ইনস্টলমেন্টও করোনার কারণে ‘ফ্রিজ’ করা হয়।
করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে লক্ষ লক্ষ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারী এবং পেনশনভোগী ডিএ-র হার বৃদ্ধির প্রত্যাশায় ছিলেন। তিন দফার ইনস্টলমেন্ট ‘ফ্রিজ’ করা এবং দেড় বছর হার সংশোধন না-হওয়ায় ‘রেট্রোস্পেক্টে’ এরিয়ার-সহ এই ভাতা মিলবে বলে আশা করেছিলেন তাঁরা। যদিও সেটা হচ্ছে না।
তবে ডিএ-র হার বৃদ্ধির ক্ষেত্রে একটি অন্য বিষয়ও জানা গিয়েছে অর্থ মন্ত্রক মারফত। এ মাসের শেষে ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ জেসিএম, অর্থ মন্ত্রক এবং ডিপার্টমেন্ট অফ পার্সোনেল অ্যান্ড ট্রেনিং-এর একটি জরুরি যৌথ বৈঠক করার কথা। সেই বৈঠক হলে হার বৃদ্ধি নিশ্চিত। না হলে অনিশ্চয়তা থাকছে বলে সূত্রের খবর।
বৈঠকটি হওয়ার কথা ছিল মে মাসে। কিন্তু তখন করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মারাত্মক দাপাদাপি। মে-র গোড়ায় এক একদিনে চার লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন। এমনকী দৈনিক মৃত্যু সাড়ে চার হাজারও ছাপিয়ে যায়। এ সবের জেরে বৈঠক পিছিয়ে যায়। সংবাদমাধ্যমের দাবি, বৈঠকটি পিছিয়ে এ মাসে হবেই।
গত বছর ২৩ এপ্রিল অর্থ মন্ত্রক জানিয়েছিল, করোনা অতিমারীর কারণে ২০২০-র জুলাই এবং এ বছরের জানুয়ারিতে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ডিএ-র বাড়তি ইনস্টলমেন্ট এবং ডিয়ারনেস রিলিফ (ডিআর) পাবেন না।
এরই মধ্যে অর্থ মন্ত্রক সূত্রে ডিএ-র হার বৃদ্ধির খবরে খুশি কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা। প্রায় ১১ শতাংশ বেড়ে মহার্ঘভাতা ১৭ থেকে ২৮ শতাংশে পৌঁছবে বলে খবর। এতে উপকৃত হবেন প্রায় ১.১ কোটি কর্মচারী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top