খুড়তুতো ভাইয়ের নামে যৌন হেনস্থার অভিযোগ, ‘অনাথ’ বোধ করছেন চিরাগ পাসোয়ান

Chirag-Paswan.jpg

Onlooker desk: ফের শিরোনামে লোকজন শক্তি পার্টি (এলজেপি) (LJP)। এ বার চিরাগ পাসোয়ানের (Chirag Paswan) খুড়তুতো ভাই প্রিন্স রাজ পাসোয়ানের দৌলতে। তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার (sexual assault) অভিযোগ জানিয়েছেন এক মহিলা। দিল্লির কনৌট প্লেস থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, চিরাগের (Chirag Paswan) বিরুদ্ধে সম্প্রতি দলে বিক্ষোভ তৈরি হয়েছে। তাতে নেতৃত্ব দেন প্রিন্সের বাবা পশুপতি কুমার পরশ। তিনি চিরাগের কাকা।
দিল্লি পুলিশ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, প্রিন্সের বিরুদ্ধে অভিযোগ হয়েছে মঙ্গলবার। তিন পাতার অভিযোগপত্র জমা পড়েছে। তদন্ত শুরু হয়েছে। এ নিয়ে শীঘ্রই এফআইআর দায়ের হবে। মঙ্গলবার চিরাগ (Chirag Paswan) কাকাকে লেখা একটি চিঠি শেয়ার করেন। সেখানে যৌন হেনস্থার (sexual assault) প্রসঙ্গটি ছিল। অভিযোগকারী মহিলা দলেরই কর্মী।
সেই চিঠিতে চিরাগ (Chirag Paswan) লেখেন — কিছুদিন আগে এক মহিলা প্রিন্সকে ব্ল্যাকমেল করছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার (sexual assault) অভিযোগ জানান মহিলা। দাদা হিসাবে এটা আমি আপনার গোচরে আনি। কিন্তু এমন গুরুতর বিষয়ও আপনি এড়িয়ে যান। আমি প্রিন্সকে বলি পুলিশকে সব জানাতে। তা হলেই সত্য প্রকাশিত হবে। দোষী শাস্তি পাবে।
দিল্লি পুলিশ (Delhi Police) জানিয়েছে, তারা আইনি পরামর্শ নিচ্ছে। সেই মতো পরবর্তী পদক্ষেপ হবে।
সোমবার দলের (LJP) অন্দরে চিরাগের (Chirag Paswan) বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রকাশ্যে আসে। তিনি বাদে পাঁচ সাংসদই জানান, চিরাগকে তাঁরা নেতা বলে মানেন না। এলজেপি সভাপতির পদ থেকে তাঁরা চিরাগকে (Chirag Paswan) সরিয়ে দেন। দিল্লিতে পরশের বাড়িতে এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। যার সূত্রে চিরাগ গোষ্ঠী ওই পাঁচ সাংসদকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়। পরশ বর্তমানে বিহারের হাজিপুর কেন্দ্রের সাংসদ।
এলজেপি (LJP) সূত্রের খবর, চিরাগের কর্মপদ্ধতিতে বিক্ষুব্ধ সাংসদরা খুশি নন। চিরাগ (Chirag Paswan) এলজেপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ানের ছেলে। বিক্ষোভের পিছনে তিনি ‘কিছু লোক’ এবং জেডিইউ-কে দায়ী করেছেন। সাংবাদিক বৈঠকও করেন চিরাগ (Chirag Paswan)। তাঁর অভিযোগ, বাবা হাসপাতালে থাকাকালীন জেডিইউ দল (LJP) ভাঙানোর চেষ্টা করেছিল।
অভিনেতা থেকে নেতা হয়ে উঠেছেন চিরাগ। তাঁর দাবি, বিহারের নির্বাচনে এলজেপির (LJP) প্রতি আস্থা দেখিয়েছিলেন মানুষ। দলও কখনও তার আদর্শচ্যুত হয়নি। কিন্তু কিছু লোক ক্রমাগত এলজেপি (LJP) ভাঙানোর চেষ্টা করেছে। চিরাগের (Chirag Paswan) কথায়, ‘আমার অসুস্থতার সময় এই ষড়যন্ত্র হয়। সে সময় আমি কাকার সঙ্গে কথা বলারও চেষ্টা করি। কিন্তু ব্যর্থ হই।’ নির্বাচনের পরে তিনি ও তাঁর মা পরশেনর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেন। তাঁর কোনও ক্ষোভ থাকলে জানতে চান। কিন্তু তাতেও সাড়া মেলেনি বলে চিরাগের (Chirag Paswan) অভিযোগ। তাঁর কথায়, ‘কাকার আচরণে অনাথ বোধ করছি।’
তিনি যে সহজে পদ ছাড়বেন না, সে ইঙ্গিতও দিয়েছেন চিরাগ। তিনি জানান, লোকসভায় দলের নেতা ঠিক করে সংসদীয় কমিটি। সাংসদরা নন। দলের (LJP) জাতীয় সভাপতি ইস্তফা দিলে বা মারা গেলে অন্য কেউ আসেন। এলজেপির সংবিধানে তেমনটাই রয়েছে। নির্বাচনে কাকা-সহ অনেকে সে ভাবে যোগ দেননি বলেও চিরাগের (Chirag Paswan) অভিযোগ। যদিও পরশেন দাবি, তিনি দল বাঁচাতেই সব করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top