কোর্টের নির্দেশে তদন্ত হতেই বিহারে করোনা মৃত্যুর হার বাড়ল ৭২ শতাংশ

Bihar-Covid-19-death-row.jpg

মৃত্যুর নতুন হিসাব ঘিরে বিরোধীদের নিশানায় নীতীশ সরকার (প্রতীকী চিত্র)

Onlooker desk: করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা সংশোধন করল বিহার। যার জেরে মৃতের হিসাব একলাফে ৭২ শতাংশ বেড়ে উস্কে দিল নানা প্রশ্ন। পাশাপাশি বাড়ল দেশে একদিনে মৃতের হিসাবও। বৃহস্পতিবার গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৬০০০-এর বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। যার পিছনে বিহারের নতুন হিসাবই দায়ী।
করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে সমালোচনায় সরব হয়েছে বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, পরিস্থিতি সামলাতে না পেরে সরকার ভুল হিসাব সামনে এনে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করছিল।
কিন্তু হঠাৎ এই সংশোধন কেন? বিহার সরকারের বিরুদ্ধে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা কম করে দেখানোর অভিযোগের প্রেক্ষিতে অডিটের নির্দেশ দেয় পাটনা হাইকোর্ট। মূলত এপ্রিল-মে মাসে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাবে মৃত্যু কত হয়েছিল, তার যথাযথ হিসাব জানাতে বলে আদালত। তিন সপ্তাহ ধরে অডিটের পর দেখা যাচ্ছে, ২০২০ থেকে ২০২১-এর মার্চের মধ্যে করোনায় ১৬০০ বিহারবাসীর মৃত্যু হয়েছে। আর এ বছর এপ্রিল থেকে ৭ জুনের মধ্যে মারা গিয়েছেন ৭ হাজার ৭৭৫ জন।
রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর আগে জানিয়েছিল, করোনায় বিহারের সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু অডিটের পর এবং বিভিন্ন জেলার পরিস্থিতি ‘ভেরিফাই’ করে তারা জানাচ্ছে, সংখ্যাটা ৭২ শতাংশ বেশি। ৩৮টি জেলার ব্রেক-আপ দিলেও কবে এই অতিরিক্ত মৃত্যুগুলি হয়েছে, সে ব্যাপারে কিছু জানায়নি স্বাস্থ্য দপ্তর। নীতীশ কুমারের সরকার বুধবার জানিয়েছে, অতিমারী কালে রাজ্যজুড়ে মোট ৯ হাজার ৪২৯ জন মারা গিয়েছেন।
নতুন হিসাব অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে পাটনায়। সেখানে কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন ২ হাজার ৩০৩ জন। ভেরিফিকেশনের পর নতুন তথ্যেও পাটনাতেই সবচেয়ে বেশি অতিরিক্ত মৃত্যুর সংখ্যা সামনে এসেছে।
আবার, পাটনার তিন সরকারি অন্ত্যেষ্টিস্থলের রেকর্ড জানাচ্ছে, সেখানে মোট ৩ হাজার ২৪৩টি কোভিডে মৃতের দেহ সৎকার করা হয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই এই ফারাক বিরোধীদের হাতে নতুন অস্ত্র তুলে দিয়েছে। তবে এ প্রসঙ্গে বিহারের স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি প্রত্যয় অমৃতের ব্যাখ্যা — অন্য কোনও জেলার বাসিন্দার দেহ পাটনায় সৎকার করা হলে সেটা তাঁর নিজের জেলায় মৃত্যুর হিসাবে গণ্য হবে, পাটনায় নয়।
মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের নিজের জেলা নালন্দাতেও ‘ভেরিফিকেশনের’ পর অতিরিক্ত ২২২টি মৃত্যুর কথা জানা গিয়েছে।
পাশাপাশি চিন্তা বেড়েছে বিহারের করোনামুক্তির হার নিয়ে। ৯৮.৭০ শতাংশ থেকে নেমে তা ৯৭.৬৫ শতাংশ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top