মেহুল চোকসিকে ঢুকতে দেবে না অ্যান্টিগা, সরাসরি আনা হতে পারে ভারতে

Mehul-Choksi.jpg

Onlooker desk: ভারতে ১৪ হাজার কোটি টাকার ঋণ শোধ না করে পলাতক ব্যবসায়ী মেহুল চোকসির জন্য দেশের দরজা বন্ধ করল অ্যান্টিগা। সেখানেই বছর চারেক আগে থেকে গা-ঢাকা দিয়ে ছিলেন তিনি। গত রবিবার রাতে রেস্তোরাঁয় খেতে বেরিয়ে ‘উধাও’ হয়ে যান। মঙ্গলবার রাতে নৌকায় নদী পেরোনোর সময় তাঁকে পাকড়াও করা হয় ক্যারিবিয় দ্বীপ ডমিনিকা থেকে। তিনি কিউবায় পালানোর ছক করেছিলেন।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যম অ্যান্টিগা নিউজ রুম জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী গ্যাস্টন ব্রাউনের বক্তব্য, ‘আমরা বলেছি, ওঁকে অ্যান্টিগায় আনতে হবে না। সরাসরি ভারতে পাঠানো হোক। যেখানে তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা এগোতে পারবে। এ দেশে ওঁকে আর ঢুকতে দেব না। অ্যান্টিগা ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করে উনি ভয়ানক ভুল করেছেন।’ অ্যান্টিগায় তাঁর নাগরিকত্ব ও ভারতে প্রত্যর্পণ সংক্রান্ত দু’টি মামলা রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে।
ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রের দাবি, চোকসি যেখানে ধরা পড়েছেন, সেই ডমিনিকার সঙ্গে দেশের সম্পর্ক ভালো। ‘ভ্যাকসিন মৈত্রী’ প্রকল্পে সম্প্রতি বিনা পয়সায় ১ লক্ষ ডোজ টিকা পাঠানো হয়েছে ক্যারিবিয় এই দ্বীপে।
রবিবার রাতে অ্যান্টিগা থেকে নৌকা করেই সম্ভবত রওনা দেন চোকসি। প্রতিবেশী ডমিনিকায় সে ভাবেই পৌঁছন। এ দিকে তাঁর নিখোঁজ হওয়ার খবর জানাজানি হতেই প্রত্যেক কাউন্টিকে সতর্ক করার পাশাপাশি ইন্টারপোলকেল ইয়েলো নোটিস জারির অনুরোধ জানায় অ্যান্টিগা। সেই নোটিসের জেরেই ডমিনিকায় ধরা পড়েন তিনি। আপাতত সেখানকার পুলিশের হেফাজতেই রয়েছেন।
এ প্রসঙ্গে চোকসির আইনজীবী বিজয় আগরওয়াল বলেন, ‘চোকসি ডমিনিকা পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন বলে আমাকে জানান হয়েছে। ওঁর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে বিবৃতি জারি করা হবে।’ পলাতক এই হয়না ব্যবসায়ী বেআইনি ভাবে ডমিনিকায় প্রবেশ করায় তাঁকে ভারতে ফেরানো সহজ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
ভুয়ো নথি দিয়ে ভারতের পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক থেকে প্রায় ১৪ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে তা শোধ না করে পালান চোকসি। একই মামলায় অভিযুক্ত তাঁর ভাগ্নে নীরব মোদী। নীরব বর্তমানে রয়েছেন ইংল্যান্ডে। ভারতে প্রত্যর্পণ আটকাতে মামলা লড়ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top