ক্লিপ ডিলিট করতে বলা হয়: সাক্ষ্য রাজ কুন্দ্রার চার কর্মচারীর

Raj-Kundra.jpg

Onlooker desk: অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী তথা ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রার (Raj Kundra) বিপদ বাড়ালেন তাঁরই সংস্থার চার কর্মী। তাঁরা এই মামলার সাক্ষী হয়েছেন। পুলিশের কাছে ওই চারজন দাবি করেছেন, তাঁদের ভিডিয়ো ক্লিপ ডিলিট করতে বলেছিলেন রাজ (Raj Kundra)। ক্লিপগুলি যে হটশট থেকে আপলোড করা হয়েছিল, তা-ও নিশ্চিত করেন ওই চার কর্মচারী।
হটশট রাজেরই একটি বিতর্কিত অ্যাপ। যা পর্ন স্ট্রিমিংয়ের জন্য ব্যবহার করা হত বলে অভিযোগ। কিন্তু গুগল প্লে স্টোর ও অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে ওই অ্যাপ সরিয়ে দেওয়া হয়। তখন ‘প্ল্যান বি’-র ছক কষেন রাজ (Raj Kundra)। তিনি বলিফেম নামে অন্য একটি অ্যাপ লঞ্চ করেন।
গত ১৯ জুলাই মুম্বই পুলিশের জালে ধরা পড়েন বছর ৪৫-এর রাজ কুন্দ্রা। মুম্বইয়ের এক ম্যাজিস্ট্রেটের আদালত কাল, মঙ্গলবার পর্যন্ত তাঁকে পুলিশ হেফাজতে পাঠায়। গ্রেপ্তারির পরদিনই রাজের ব্যবসার রেকর্ড থেকে অনেক ডেটা ডিলিট করে ফেলা হয়েছে বলে পুলিশের অভিযোগ।
এ দিকে, এই মামলার জাল ক্রমশ বিস্তৃত হচ্ছে। সূত্রের খবর, আইবি-র এক কর্মচারীর সঙ্গে আর এক অভিযুক্ত যশ ঠাকুরের যোগ রয়েছে। যশ আপাতত পলাতক। আইবি-র ওই কর্মীর সঙ্গে যশ প্রথমে বন্ধুত্ব পাতায়। তারপরে ক্লিপ আপলোড করার জন্য ওই অ্যাপ শুরু করার ক্ষেত্রে সুযোগ নেয়। অ্যাপটি স্ত্রীর নামে রেজিস্টার করেন ওই পুলিশকর্মী। কিন্তু ওই অ্যাপে যে পর্ন স্ট্রিম করা হবে, সে কথা তাঁকে জানায়নি যশ। বরং বলা হয়েছিল, পুরস্কারজয়ী শর্ট ফিল্ম আপলোড করা হবে। যখন তিনি দেখেন, অ্যাপটিতে পর্ন আপলোড করা হচ্ছে, তখনই আপত্তি জানান ওই আইবি কর্মী।
রাজের অবশ্য দাবি, যে ক্লিপ নিয়ে আপত্তি, সেগুলিতে যৌনতা রয়েছে। কিন্তু যৌনসঙ্গমের বিস্তারিত কারবার দেখানো হয়নি। রাজের আইনজীবী আবাদ পণ্ডাও কনটেন্টকে পর্নোগ্রাফি বলায় আপত্তি করেছেন। তাঁর দাবি, একই রকম দৃশ্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলিতে দেখা যায়।
অন্যদিকে, শিল্পা পুলিশের কাছে দাবি করেছেন, যে অ্যাপের মাধ্যমে পর্নোগ্রাফি ছড়ানোর অভিযোগ, তার যথাযথ ‘নেচার’ তাঁর জানা ছিল না। তা ছাড়া, যৌন উস্কানি বা আবেদনমূলক ছবির সঙ্গে পর্নোগ্রাফির ফারাক রয়েছে। সেই যুক্তিতে স্বামীকে নিরপরাধ বলে দাবি করেন শিল্পা। রাজ পর্নোগ্রাফি চক্রের সঙ্গে জড়িত নন বলেও জানান শিল্পা।
এ দিকে মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেতা আশিস শেলারের অভিযোগ, রাজ্য সরকার ইচ্ছে করে এই মামলায় বিলম্ব করছে। এ ব্যাপারে একাধিক মন্ত্রকের প্রতিনিধি নিয়ে টাস্ক ফোর্স গড়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি। সেই মর্মে চিঠিও দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে।

Theonlooker24x7.com সব খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক করুন ফেসবুক পেজ  ফলো করুন টুইটার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top