কঙ্গনার একাউন্ট চিরতরে বন্ধ করল টুইটার, পাল্টা অভিনেত্রীর

kangana.jpeg

Onlooker desk: শেষ পর্যন্ত চরম সিদ্ধান্তই নিলো টুইটার। কঙ্গনা রানাওয়াতের একাউন্ট চিরকালের জন্য সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়েছে আজ, মঙ্গলবার। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের পর ক্রমাগত বিতর্কিত পোস্ট দিচ্ছিলেন বলিউডের এই অভিনেত্রী। তার প্রেক্ষিতেই কঠোর পদক্ষেপ করলো টুইটার।
সামাজিক এই মাধ্যমের এক মুখপাত্র বলেন, ‘বাস্তব জগতে কোনো ধরনের ক্ষতিসাধন করতে পারে, এমন যে কোনো আচরণের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপে আমরা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। এবং এই বার্তাটাও আমাদের তরফে স্পষ্ট করে সকলকে জানিয়ে দিতে চাই। সংশ্লিষ্ট একাউন্ট থেকে বারবার টুইটারের বিধি ভাঙা হয়েছে। বিশেষত হিংসা ছড়ানো ও অসম্মানজনক আচরণের বিধি লঙ্ঘন করা হয়েছে। বিধি কার্যকর করার ক্ষেত্রে সকলেই সমান।’
কঙ্গনা অবশ্য এ সবে দমে যাওয়ার পাত্রী নন। তিনি পাল্টা বলেছেন, ‘এ সব করে আমার বক্তব্যেই সিলমোহর দিলো টুইটার। তারা দেখিয়ে দিলো যে জন্মসূত্রে মার্কিন বলে একজন অ-শ্বেতাঙ্গকে ক্রীতদাস বানিয়ে রাখতে চায়। আমার আরও অনেক প্ল্যাটফর্ম আছে। সেখানে আমি নিজের কথা বলে যাবো।’ উল্লেখ্য, কঙ্গনা সম্প্রতি এক টুইটার কর্তার হ্যান্ডেলে ঢুকে সামাজিক এই মাধ্যমের বিধি বদলাতেও চেয়েছিলেন।
এই অবশ্য প্রথম নয়। আগেও কঙ্গনার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে টুইটার। এ বছরের গোড়ায় তাঁর একাউন্টে কিছু নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। সে বার ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার জন্য ওয়েব সিরিজ তাণ্ডব-এর নির্মাতাদের মুন্ডু কেটে নেওয়ার নিদান দিয়েছিলেন কঙ্গনা।
এমনিতেই গেরুয়া শিবিরের হয়ে নানা সময়ে গলা ফাটান তিনি। সে সব নিয়ে ট্রোলড হন। তবে কোনো কিছুকেই গায়ে না মেখে একই রকম আচরণ চালানোর ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন কঙ্গনা। এ বার পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে বিজেপির শোচনীয় পরাজয়ের পরে সেই সিলসিলা বজায় রেখেই আপত্তিকর পোস্ট করে যাচ্ছিলেন টুইটারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top