বিশ্বের প্রথম প্লাসমিড ডিএনএ টিকার ইমার্জেন্সি ব্যবহারে ছাড় চাইল জাইডাস ক্যাডিলা

WhatsApp-Image-2021-07-01-at-2.16.10-PM-1.jpeg

Onlooker desk: এ পর্যন্ত প্রথম ইঞ্জেকশন-মুক্ত করোনা টিকা উৎপাদনের কৃতিত্ব দাবি করেছে জাইডাস ক্যাডিলা। তাদের জাইকোভ-ডি টিকার তিনটি ডোজ নিতে হবে। শিশুদের জন্যও তা নিরাপদ বলে জাইডাস ক্যাডিলার দাবি। জাইকোভ-ডি টিকার ইমার্জেন্সি ব্যবহারে অনুমোদন চেয়েছে জাইডাস ক্যাডিলা।
তাদের দাবি, এই ভ্যাকসিন উপসর্গযুক্ত কোভিড কেসের বিরুদ্ধে ৬৬.৬ শতাংশ কার্যকর। অসুখের মাত্রা গুরুতর না হলে তা ১০০ শতাংশ কার্যকর। বছরে এই টিকার ১২০ মিলিয়ন ডোজ তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। ভারত তাদের আবেদনে সায় দিলে জাইকোভ-ডি হবে দেশের পঞ্চম টিকা।
১২ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের জন্যও তাদের টিকা নিরাপদ বলে জাইডাস ক্যাডিলার দাবি। দেশে ২৮ হাজার মানুষের উপরে টিকার ট্রায়াল হয়েছে। যার মধ্যে ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সি সদস্য হাজার খানেক। যদিও শিশুদের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার দাবি এখনও যাচাই করা হয়নি।
জাইকোভ-ডি হলো বিশ্বের প্রথম প্লাসমিড ডিএনএ ভ্যাকসিন। ভাইরাস, প্যারাসাইট এবং ক্যানসারের বিরুদ্ধে এ ধরনের টিকার কার্যকারিতা নানা সময়ে প্রমাণিত। শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরির ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে এই জাইকোভ-ডি।
টিকার মাধ্যমে ডিএনএ সিকোয়েন্স শরীরে প্রবেশ করানো হবে। তার প্যাটার্ন ভাইরাসের সমগোত্রীয়। হোস্ট সেলে এই প্লাসমিড ডিএনএ প্রবেশ করিয়ে তাকে ভাইরাল প্রোটিনে পরিণত করা হবে। যাতে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা অনেকাংশে বাড়ে। এই টিকা তৈরি ও তার রক্ষণাবেক্ষণও অন্যান্য ভ্যাকসিনের তুলনায় সহজ।
জাইডাসের দাবি, ডেল্টা ভ্যারিয়ান্টের দাপাদাপির সময়ে তাদের তৃতীয় পর্বের ট্রায়াল হয়। দ্বিতীয় ঢেউ শীর্ষে থাকার সময়ে টিকার ট্রায়াল হওয়ায় তার কার্যকারিতাও অনেকাংশে প্রমাণিত। এবং তা ডেল্টার বিরুদ্ধে কার্যকর বলেও প্রতিষ্ঠিত।
জাইকোভ-ডি এর তিনটি ডোজ নিতে হবে। এ পর্যন্ত সব টিকাই ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে দেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে তার প্রয়োজন হবে না।
টিকাটি ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রাখা যাবে। কিন্তু ২৫ ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রায় তিন মাস তা ঠিক থাকে। এমনই দাবি জাইডাসের। যার ফলে এই টিকার পরিবহণ সহজ। কোল্ড চেনের সমস্যাও অনেকাংশে এড়ানো যাবে।
এ নিয়ে একটি বিবৃতি জারি করেছে জাইডাস। সেখানে তারা জানিয়েছে — এটি একটি প্লাসমিড ডিএনএ ভ্যাকসিন। তার ফলে জাইকোভ-ডির ভেক্টর ভিত্তিক রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নিয়ে কোনও সমস্যা নেই।
বিশেষজ্ঞদের মতে, এই টিকাকে অনুমোদন দেওয়া হলে একটি নতুন দরজা খুলে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top