চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের ভারতরত্ন দেওয়া হোক, মোদীকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি কেজরিওয়ালের

WhatsApp-Image-2021-07-04-at-6.29.03-PM.jpeg

Onlooker desk: অতিমারী পরিস্থিতিতে নিজেদের ও প্রিয়জনদের জীবনের তোয়াক্কা না করে কাজ করে গিয়েছেন তাঁরা। ঝুঁকি যে কতখানি, তা একের পর এক মৃত্যুর সংবাদেই পরিষ্কার হয়। কিন্তু তার পরেও হাল ছাড়েননি।
চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মীদের তাই ভারতরত্ন দেওয়ার আবেদন জানালেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এই মর্মে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখেছেন তিনি। ভারতরত্ন ভারতের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান। যা প্রতি বছর দেওয়া হয়।
মোদীকে চিঠিতে কেজরিওয়াল লিখেছেন — কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আমি অনুরোধ করতে চাই, এ বছরের ভারতরত্ন দেওয়া হোক এক ভারতীয় চিকিৎসককে। ‘এক ভারতীয় চিকিৎসক’ বলতে আমি সমস্ত ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীকে বোঝাচ্ছি।
কোভিড ডিউটি করাকালীন যে শত শত স্বাস্থ্যকর্মী শহিদ হয়েছেন, এ ভাবেই তাঁদের সেরা সম্মান জানানো যাবে। চিঠিতে এমন মতও জানিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী।
করোনা পর্বের গোড়া থেকেই মারণ ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি শহিদের তালিকায় রয়েছেন চিকিৎসাকর্মীরা। গত বছর থেকে নিরলস পরিশ্রম করে চলেছেন তাঁরা। যখন পর্যাপ্ত মাস্ক, পিপিই, স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা হয়নি, তখনও নিজেদের কর্তব্যে অবিচল থেকেছেন তাঁরা।
কোভিডে এ পর্যন্ত ৭৩০ জন চিকিৎসকেরই মৃত্যু হয়েছে। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন এই পরিসংখ্যান দিয়েছে। এর বাইরে বিপুল সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মী তো আছেনই। সবচেয়ে বেশি চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে বিহারে (১১৫)। তারপরেই রয়েছে দিল্লি (১০৯), উত্তর প্রদেশ (৭৯), পশ্চিমবঙ্গ (৬২), রাজস্থান (৪৩), ঝাড়খণ্ড (৩৯), অন্ধ্র প্রদেশ (৩৮)।
কোভিডের ডিউটিতে যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, এমন প্রথম সারির যোদ্ধা ও চিকিৎসকদের পরিবারের পাশে দাঁডি়য়েছে কেজরিওয়াল সরকার। তাঁদের এককালীন ১ কোটি টাকা দেওয়া হচ্ছে।
ভারতরত্ন প্রতি বছরই দেওয়া হয়। শিল্প, সাহিত্য, বিজ্ঞান, জন পরিষেবা বা যে কোনও ধরনের মানবিক কাজের স্বীকৃতি হিসাবে দেওয়া হয় এই সম্মান। জাতি, ধর্ম, সম্প্রদায়, পেশা, অবস্থান বা লিঙ্গ, কোনও নিরিখেই কোনও বিভাজন করা হয় না।
চিঠিতে কেজরি লিখেছেন — এঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর এর চেয়ে ভালো পথ আর কী হতে পারে? বর্তমান আইনে যদি এ ভাবে কোনও গোষ্ঠীকে ভারতরত্ন দেওয়ার সংস্থান না থাকে, তা হলে আমার অনুরোধ, দয়া করে আইন একটু বদল করুন। গোটা দেশ চিকিৎসকদের প্রতি কৃতজ্ঞ। তাঁদের ভারতরত্ন দেওয়া হলে পুরো দেশের মানুষ খুশি হবেন।
গত ১ জুলাই ছিল জাতীয় চিকিৎসক দিবস। সেই উপলক্ষ্যে রবিবার সিনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে ভার্চুয়ালি একটি বৈঠক করেন কেজরিওয়াল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top